পজিটিভ রাচনীতি, নেগেটিভ রাচনীতি

আমন’ ধক্যে চাঙমা চাঙমা গোরি থেয়্যে (অনেগর মতে হুয়ো বেঙ) মুনিচ্যরে আবাধা গরি রাচনীতি বাবদর মেলাক জিনিঝোর পইদ্যেনে হলম ধরিলে অনেগে আমক ওহ্বাক হামাক্কায়। অহ্লেয়ো ইরুক হয়েক্কো পতপত্যে চাঙমা পুও-ছাবায় রাচনীতিত লাম্যন হিনেত্তেই তারার উধিঝে এ লেঘাগান। তবে ইয়োত তুলোপারা গোচ্যে জিনিচ্চানি বে’ক জাগার পইদ্যেনে থে’ হেলেয়ো আঝলে সিয়েনি চা’ ওহ্য়ে মুলত তিবুরার রাচনীতির নজরে। সেনত্তেই, জে পরভুও লক্কুন তিবুরা হুল্লে নয় তারা হয়ত বেক ব্যাপারানি বুঝোদে এক্কা লেবর-ঝেবর ওহ্ই পারে সেনত্তেই মুই তারাত্তুন আকমুলিম হেমা চাঙর।

পজিটিভ রাচনীতি হি আ নেগেটিভ রাচনীতিই বা হি ? ভিশন ছাড়া পজিটিভ রাচনীতি ওহ্ই ন’ পারে। পজিটিভ রাচনীতি গরিয়েই পতপত্যে গরি দেঘে তার দায়িত্য পরিলে তে আদামানি হেধক্যে গরি সাজেব’। পত্তানি হেধক্যে গরি বানেব’। হন ছড়ান’ উগুরে হেধক্যে গরি রেগা দিবো। হন হন জাগাত ইস্কুল-কলেচ বানেব’। সে ইস্কুলানি হিঙিরি চলিবো। হন হন জাগাত হাসপাতাল বানেব’। সে হাসপাতালানির পতপত্যে ছাবা তা চোঘোত ভাজি বেড়ায়। তে হবর পায় তে হেধক্যে আদাম চায়, হেধক্যে রেজ্য চায়, হেধক্যে দেচ চায়।

নেগেটিভ রাচনীতি গরিয়ের হন’ ভিশন ন’ থায়। থেলেয়ো সিয়েনি বানা তার ভাষণত নলে ইলেকশন মেনিফেস্টোত। সিয়েনি তে সবন ন’ দেঘে। সিয়েনির সবনে তে পাগলো নয়। সেনত্যেই জিদিবার পরে সিয়েনি তে পুরিয়ো ফেলায়োই ঝাদিমাদি।

নেগেটিভ রাচনীতি গরিয়ের দিয়েন আহ্ত্যের-লুভ দেঘানা আ দর দেঘানা। তরে চাগুরি দিম, তরে বেতন বারেই দিম, এক তেঙা দরে চোল দিম, রেগা হাম দিম, ভাতা দিম। ইয়েন দিম, উভোন দিম গরি লুভ দেঘানা। আ দর দেঘানা, জেমন তরে বদলি গরি দিম, ত’ পুওভো চাগুরি ন’ পেভ’, তর রেগা কার্ড হাবা জেব’, বিপিএল কার্ড হাবা জেব’। তুই ঘর ন’ পেভে। গাড়ির পারমিট ন’ পেভে। কারেন্ট ন’ পেভে। তমা আদামানে পত ন’ পেভ’, রেগা ন’ পেভ’। থানাত নানান বাবদর কেজত ফেলেনেই দলত তানানা। ইয়েনি ভেক্কানি নেগেটিভ রাচনীতির আহ্ত্যের। তুই ম’ দলত থেলে বে’ক পেভে আ ম’ দলত ন’ থেলে হিচ্চু ন’ পেভে।

ভালুক্কো গম গম মানুঝে (মানে মনে-দিলে ঘেচ্চেক গরি গম) পুঝোর গরন-সিয়েনি ন’ গরিলে হিঙিরি তুই রাচনীতি গরিবে ? সালেদ’ ত’ দলত হন’ জন ন’ এভাক। তার জবাবে মুই হধুঙ চাঙ-সালে তর ত’ উগুরে আ ত’ সবন’ উগুরে পুরোপুরি বিশ্চেচ নেই। সুশাসন আ নিরপেক্ষ ভালেদি হামে জিদুক্কো মানুচ হায় টানিবো, লুভ আ দর দেঘেনেই সিদুক্কো মানুচ হায় টানি ন’ পারিবো হামাক্কায়। পজিটিভ পলিটিক্সত হয়েক জন দুলো ধরিয়ে মানুঝে চাগুরি, এক তেঙা দরে চোল, এক জাগাত গদা জিঙহানি চাগুরি গরানা বাদা ন’ পেভাক থিগই মাত্তর আহ্জার আহ্জার জুওইয়ে পুও-ছাবা চাগুরি পেভাক, বেচভাক মানুঝে দোল স্কুল পেভাক, দোল হাসপাতাল পেভাক। এক তেঙা দরে চোলর দরকার নেই। তারারে হাম দিলে তারা নিজেই বাজার দরে চোল হিনি হেই পারিবাক। নেগেটিভ রাচনীতিয়ে মানুঝোরে গরীব রাঘায়, অশিক্ষিত রাঘায়। হারন তেঙা-পোঝে থেলে মানুচ লুভত ন’ পরন, শিক্ষিত অহ্লে মানুচ পাদারা ন’ থান। সেনত্যেই নেগেটিভ পলিটিক্সে তরে ভাতা দিবো, বিপিএল দিবো, এক তেঙা দরে চোল দিবো, ইয়েন-দিবো, উভোন দিবো-বে’ক দিবো মাত্তর তর ইনকাম বারেই ন’ দিবো। স্কুলোত স্টাইফেন্ড দিবো-মাত্তর গম স্কুল ন’দিবো।

নেগেটিভ পলিটিক্সর আরক্কান দাঙর বিপদ অহ্লদে-সিয়েন মাত্র এক্কান লেভেল সঙ তিগি থায়। লেভেল পার ওহ্ই গেলে সিয়েন গারে-গায় নিজে নিজে ভাঙি পরে। হারন তার জে মেইন দিয়েন আহ্ত্যের-লুভ দেঘানা আ দর দেঘানা তার ফলে সে দলুনোত সয়-সাগর লুভি আ পাদারা মানুচ জমা অহ্ন। তারা তর মতাদর্শ গম পেনেই ন’ এঝন। তারা এচ্চোন্নে লুভে, নয় দরে। তারা সেক্কেনে রাচনীতি ন’বুঝোন। বুঝোন্নে পেটনীতি। সাইকোলজির নজরে রিনিলে হিন্তুক লুভি আ পাদারা প্রায় এক জিনিচ। হারন লুভি মানুঝোরই আহ্রেআর দর থায় বেচ। সেনত্যেই তারা দরানো বেচ। নির্লোভ মানুঝোর আহ্রেবার দর ন’-থায়। সেনত্যেই তারা দরানো হম। নেগেটিভ পলিটিক্স গরিয়ে দলুন জেক্কে বেচ দাঙর ওহ্ই জান্নোই, সেক্কে তার চাবাঙীগুনোর ভিদিরে স্বার্থর হোচ্যে বাঝি জায়। সে হোচ্যেত হামাক্কায় গরি তলরুনেই, জিগুনে ইক্কো দলর আঝল শিঙোর সিগুনেই ন জিদোন। ফলে স্বার্থে আ দরে ভেক্কুনে সে দল্লোরে গঝি ললেয়ো ভিদিরে ভিদিরে তারার মনদুখ বারি জায় আ সে শিঙোরত ইক্কো দরমর হুব পরিলেই বিরেট পার্টিয়ো মরা গাঝ’ সান ভাঙি পরি পারে।

সেনত্যেই, নিজোর উগুরে, নিজোর সবনর উগুরে পুরো বিশ্চেচ থেলে নেগেটিভ নয়, পজিটিভ পলিটিক্স গর’।

০৭ নভেম্বর, ২০১৭

Advertisements

The Chakmas and the so called Facebook heroes

Facebook, started in 2003 as FaceMash has evolved as Facebook in 2004 and gone global in 2007-08. Chakmas started to flock together in Facebook in 2009-10. In that time the world was experiencing some unique movements which gathered their strengths from online activism. Arab Spring (December 2010), Occupy Wall Street and Anna Hazare’s movement demanding strong Lokpal Bill (April 2011) also may have direct or indirect influence on the Chakma online activists.

I have joined Facebook on 24th September 2010. Before my joining, the pioneers among the Mizoramme Chakma Facebookians Hemanta Larma and Paritosh Chakma joined FB on February 2009 and February 2010 respectively. Arunachalye Chakmas came much later. Ranjan Chakma joined in June 2012 and Orunjit Changma in January 2013. However, three Chakma Facebookians from Arunachal namely Prahlad Chakma (joined in October 2009), Punya Chakma (March 2010) and Vivekananda Chakma (joined in July 2011) was already there but we could not feel strong presence of Arunachallye Chakmas till the arrival of Ranjan and Orunjit. Bangladeshi Chakmas are also started using FB in the same time. As example, we may mention the name of Odong Chakma (joined in May 2009), Sedampanja Chakma (June 2010) and Radhamon Donpudi (joined in August 2010).

The primary use of FB for us was to disseminate information and thus trying to form public opinion on various developmental issues. Before Hemanta and Paritosh started disseminating information through Chakma Voice in FB , they used to send bulk SMSs to the public named MCDF Fogodang. According to MCDF, at the end of 2010, their Fogodang had 10,000 registered customers. In Tripura, MAADI had also launched a similar programme. But it came to a halt in the end of 2012 when TRAI tightened the rules for sending bulk SMSs. We were publishing a monthly newsletter in that time which were also experiencing numerous problems, distributing the paper in all over the state being the major one. Our MAADI monthly ultimately ceased to be published in the end of 2011. So the only option left for us to disseminate information to public is the Facebook.

We found it very useful to voice our never unheard voices. The mainstream medias never given us importance. So much so that once we organised a demonstration at Agartala demanding introduction of Chakma Scripts in Primary Education system and our procession marched-through in front of the Dainik Sambad office, the largest daily of Tripura. But on the next day, with our sheer astonish we found that Dainik Sambad did not reported our procession. In this situation, when we discovered the Facebook, it is just like a free online newspaper for us having thousands of circulation. We found that if our ground workers acts as Citizen Journalist, we will be getting live telecast of our happenings from all over the Chakma populated areas which is far better than Dainik Sambad. So, we went with it happily.

In Tripura, we are yet to create a productive FB network. Presently, most of our FB users are limiting themselves with unproductive pessimistic views, indulging exhibitionism, highlighting personal activities and gossiping or teasing each-other etc. like village folks do when they meet on the way. We are hardly trying to mold public opinion on a particular issue. Moreover, our ground activists still to realize its possibilities as mass media and record store.

Fortunately, in Mizoram, in spite of all its odds like poor network coverage and famous load shedding, Chakma brothers & sisters could realise a considerable amounts of benefit out of it. Handling of Parava starvation (March-April, 2011), epidemic at Thanzamasora (March-April-2011), derogatory comments on Chakmas by Mizoram CM (May 2011) and case of Lobindra (September 2011) are just a few to mention where FB was used tremendously to mobilize the mass-resources, exerting pressure on the stake holders and to form public opinion in favour of the issue. The credit goes to MCDF/Chakma Voice in general and Paritosh and Hemanta in particular. These all have also delivered a good deal to mature some of our think tanks like Hugi Eswar and Boyeer Changma.

Now, FB has given us a free live newspaper on which everybody is free to express their feelings, anger, ideas so forth and so on. But some of our leaders are trying to censor it. We may recall the famous El Bee Chakma’s case in this regard. El Bee Chakma was allegedly transferred from Kamalanagar to Lungle for participating in a discussion on corruption in CADC in Facebook (July 2012). Hugi Eswar wrote, “ Your people appear to be following Chakma internet users closely and your coterie must be working that extra hour, ready to go that extra mile to set an example by suspending EL BEE Chakma so that no one in the future shall dare to criticise or speak ill of you and your administration and the system you have established in your kingdom. It is so unbelievably comical that you even keep track of social networking sites of Facebook to keep a check on dissenting voices against corruption, policies, governance and administration or the lack of it thereof. By threatening with your big stick as a means to suppress such voices coming from concerned citizens, you are doing me and many others proponents of free speech a big favour. You shall bring your own downfall just this way for it is seen that a person who don’t tolerate others; others also don’t tolerate such person for very long. Thank you in advance for baring before us your limitations as policy makers and decision takers.”

Not only the ruling class, some of our comrades are also discouraging free expression in our only media in times off and on. They reasonably feel disappointed when someone opposes their ideas/actions without a valid reason or comments rude, negative or nonconstructive without showing any better alternatives. But we should remember that, in our eyes, the FB is (of course not withstanding other numerous use of FB) a newspaper of the people, by the people and for the people. So we can not expect a uniform level of intelligence and awareness among all the participants. The thousands of dumb readers/viewers of printing/electronics media are getting the privilege of a reputed journalist and a celebrated commentators here in Facebook, so they are reporting and commentating only at par their level and which is their level best. Here comes the leader who will be able to organise these jumble of voices in to a chorus and use it for the purpose intended.

Some of my friends even mock them terming Facebook Heroes and Armchair Revolutionists. Yes, all of us are not with you on the ground and some of us even refused to go with you showing a bizarre excuse. It is a normal practice for us, because we are the people. But you should not mock us, because you are the leader. But you remember, your actions will be questioned and your silences will also be questioned. Because, we are the base, we are numerous, we are the roots and we feed you. You should also remember that we did not begged you to serve us, you voluntarily came to us for our service, and you did, in turn we loved you and honoured you. So, we have every right to question you in any moment.

June 26, 2014 at 12:51 am

Changmhaghun Actionist na Reactionist?

Nanan leghat ami onsur deghiy `omuk reactionist’ `somukdaghi reactionist’. Ajhole `reactionist’ hi ? Reactionistore bangladhi honne`protikriyashil’. Tar mane ohlode `je protikriya ba reaction gore’. Sadharon cholti meaning ohlode je hono political ba social change goribhar actionot reaction gore aa se changot gor diber chestha gore.

Tobe ami iyot reactionist-or exact meaningot no jebong. Ami iyot uju uju bujibonge, je hono hamot reaction deghai te reactionist. Se nojore judi chei sale debhong ami Changmaghun bhekkun reactionist. Hono jonor hono action sara amar nijo action no oi. Ami je historically jat ijhebe reactionist tar proman aghe. 18th centuryt Ingrecchunor bech tulo-hhajana maganar reaction ijhebe ami taralloi juddho gochyei, 1947-t dech belogor somoyot CHTgan Pakistanot phelei dile reaction gochye S. K. Chakma, 1960s-t Pakistan sorkaror Borgangot godha aa tar fole ek lhagor hure hure manuch dubonar reaction gochye M. N. Larma aa siyen poredhi dangor ohnei dech-hulor ikkunur self determinationor andolonot solong bodolye. Aa ikkuyo Arunachal, Tibura aa Mizoramot Changmagunor je ham/movement-ani degha jar siyeniyo nimon gori rini chele bhekkani reactionary characteror.

Ikku degha jok mui Changmagunor andolonani reactionary characteror hongor hittyei. Ami age dhuri hono ham no goriy. Ama ugure hono action elete siyenor reaction ijhebe ami ham arombho goriy aa siyenore glorify goribetyei larei/andolon ebabodor nang diy. Ajhole je siyen ekkan reactionary activity siyen ami no bujhiy. Ama hamani judi `reaction’ no oney `action’ ohdo sale ami ingrecchunore thegebatyei agettun dhuri arhani gorilongon, Dech-hulon Bharot banebatyei agettun dhuri toktokye ohlongun, ama CHTgan emon ahbalot agettun dhuri thelun Pakistan sorkare suyot godha dinei bhui-jomin aa rach ghor dubeidi no pallun, ami Tibura, Mizoram aa Arunachalot edhok chibe-chipyet no thelongon.

Hodhagan arokka potpotye goribetyei ami hoi pariy ami nijo maadi, nijo manuch, nijo bhach, nijo sudom bhaled goribetyei honodin agettun dhori ham arombho no goriy. Siyeni ugure jekke aghat ejhe te siyeni ago dhok ragebatyei jaguluk bodiy. Mane action elete reaction goriy. Senotyei hongotte ami reactionist.

Ami judi ama manuch, ama hodha, ama sudom, ama maadi-iyenire ek-ikko muro loghe tulona goriy sale ami debhong e muroghun phelei toyei ami obang-padare. Siyenit het-hetti goribhar amar hono icchye nei. Ami boroncho manye foleye dol dol jinichaniloi ludu pudu oi thei aa hoi-ama muroghun dol nei, jhar, hama-omukdaghi murobo dol, sabak. Ami ama jagani hodha jiddhur hobor pei sittun onekgun bech hobor pei poror jagar hodha. Ama puo-sabare ama jaga hodha sigebaro dorkar mone no goriy. Ami jukti deghei, poror jagar hobor peledho chaguri pai (mane tarar chagor oi pare), ama jagar hobor pele hi debeda pai ? Mattor ama muroghun sulile aa sajele je tara sigunottun bech dol oi pare se chidegan no goriy. Judi gottong salen ami olongon actionist. (Actionist rawbuo judiyo bhul, reactionist bujibetyei, tar ulloghan actionist huo otte).

Mattor amar chok no denar fole onyo jade se muroghun luk-hudadon onsur. Se manuch (milegunore lona aa morottunore tara dhormo gojhei dena), maadi (maadi gojhok gorana, se madit theye ama Bijokkani pujhi felei dena), sudom (tarar sudom export gorinei manuchunore tara dhok banana), bhach (tarar bhach chabei dena)-iyenir ugure jekke attack ejhe sekke ami lori-chori udhiy (syedo mora suguniyo purile bhile tin pak hai)-jiyen cent-percent reactionary characteror.

Reactionistor niyom ohlode tara than ajukkuleye ar tarar bolo thai hom. Jar actiono ugure tara reaction gotton tara te hobor padhe padhe, jugulode jugulode birudhi pkkogune haman akkoi nejan bhaluddurot. Ar je attack gore te plan goribhar somoy pai, je abadha ghumottun jaginei resist gore tar dijhe pade jai hakkon, jugulode jai aro hakkon, se poredhi plan gorinei counter attack gotte gotte hoito attackerboi lareyan thumot felayoi.

Pittimit degha jeye reactionist ba protikriyashil goshti honodin hono juddhot no jinon. Se natural aa omokkor niyomei ami ecchye potti juddhot ohdi jer bar bar. Senotyei ama characterani reactionistottun actionist gori pebhong. Mane ami protikriyashil oi pebhar age kriyashil ohbong. Larei habilune hoi jeyon offence is the best defense. Senotyei ikkine nijore gome defense gotto gle offensive obar dorkar aghe. Poreye dol dol jagani chei chei bo nijech no felenei amar nijor jaganit fosol folebar jukkol gori pebhong ikkine. Tena poreye jade bujidhak jaganir ajole nanu agonne nena !

রুধুক মরা জাদর লেমপচ্যা রাজনীতি

 

১৯৪৭ সনর ১৫ আগস্ট ভারদ স্বাধীন অহ্য়। তার ঠিক দি বঝর দি মাঝ পরে তিবুরা রেজ্যঘান ভারদর লঘে মিঝি যায় ১৯৪৯ সনর ১৫ ই অক্টোবরত। সারা ভারদর লঘে ১৯৫২ সনত তিবুরাদো ভোট অহ্য়। লোকসভা আ ইলেকটোরাল কলেজর ভোট। সেক্কেনর চাঙমাঘুনোর রাজনৈতিক ভাবে হন চেতনা এল ভিলি মনে ন অহ্য়। যদিও সেক্কেনে মাছমারার লেদ্রাই দেওয়ান তিবুরার রাজা বীর বিক্রম কিশোর মানিক্যর সভাত ‘সর্দ্দার’ উপাধি লোনেই তিবুরা রাজসভাত বজিভের জু পেয়ে আ কাঞ্চনপুরর ফরা কিংকর চাকমার দশরথ দেবর গণমুক্তি পরিষদর লঘে যোগাযোগ এল ভিলি শুনো যেয়্যে। সেবাদে ত্রিশর দশকর ত্রিপুরা রাজ্য গণ পরিষদ বা ত্রিপুরা রাজ্য জনমঙ্গল সমিতি, চলি­শর দশকর জনশিক্ষা সমিতি, গণমুক্তি পরিষদ বা কংগ্রেস-কমিউনিস্ট-ফরোয়ার্ড ব্লক হন দলদোই চাঙমাঘুন গমেদালে ঘুনজি-মুনজি এলাক ভিলি খবর পা ন যায়। যদিও উপজাতির মধ্যে তারা লোক সংখ্যাদি এলাক দ্বিতীয় আ শিক্ষাদীক্ষাধিয়ো এলাক ত্রিপুরী স¤প্রাদায়র ঠিক পরে। তিবুরার চাঙমাঘুনোর এ রাজনীতি অনীহার হয়েকখান কারন আঘে। সিয়েনি অহ্লদে- ১) রেজ্যর রাজধানীত্তুন দুরোত থানা, ২) জুম হাহ্নার কারনে বরবেজ ডাঙর আ ঠায়ঠিক আদাম বানি ন থানা আ ৩) সেক্কেনর রাজনৈতিকভাবে নবজাগরিত ত্রিপুরী স¤প্রাদায়র লঘে হধার অমিল। এ অমিলর কারনেই জনশিক্ষা সমিতি বা গণমুক্তি পরিষদ চাঙমাগুন্নোয় বরবেজ হুদুম বানেই তুলিবার চেষ্টা ন গরে। সুযোগ পেধ’ মনুগাঙর মাধব চন্দ্র চাকমা জনশিক্ষা সমিতির নেতাগুন্নোয় আহ্দ মিলেলুন ভিলিনেই আমার বিশ্বেজ। যেহেতু তে একই সময়ত একই চেষ্টা গরিভার চেয়ে চাঙমা বামানিত। এমনকি মহারাজা বীরবিক্রম তার যে ‘পঞ্চ ত্রিপুরা প্রজা তালিকা’ নিহ্গিলেয়ে সুয়োদ চাঙমাগুনোর নাঙ ন এল।

দেঝভাগর লক্কে দঘিন কুলত্তুন এচ্ছে নেতাগুনেয়ো ইধু রাজনৈতিকভাবে তেমন প্রভাব বিস্তার গরি ন পারন্ধি। একমাত্র øেহকুমার চাকমা তার ট্রাইবেল ইউনিয়ন নিনেই হিঝু চেস্টা গচ্ছে। হিন্তু মূলতঃ দশরথ দেবর লঘে তার মতাদর্শগত ফারগ থানার ফলে তে ইধু বরবেজ প্রভাব বিস্তার গরি ন পারে। তার মতাদর্শ এল জাতীয়তাবাদী হিন্তু দশরথ দেব কমিউনিস্ট । আর ত্রিপুরী স¤প্রাদায়ত দশরথ দেবর প্রভাব সেক্কেনে হোবার নয়। ত্রিপুরী স¤প্রাদায়র জাতীয়তাবাদ তার অনেক পরে গাবুচ্যাঘুনোর আহ্ত ধরিনেই ১৯৬৭ সনত উপজাতি যুব সমিতি জনম দেনার মধ্যেদি পত্থম প্রকাশ পেয়ে।

তিবুরার চাঙমাঘুন আধুনিক গণতান্ত্রিক রাজনীতির লঘে পত্থম মুওমি ওহ্য়োন যেক্কে ১৯৬৭ সনত বিধান সভার ভোট ওহ্ইয়ে। সে পরেধি ১৯৭২ সনত তিবুরা তজিম রেজ্য অহ্লে গদা তিবুরাত পুরোদমে রাজনীতি আরাম্ভ অহ্য়। ছড়াছড়ি থুমোর চাঙমাগুনোর মোনো ঘরে-ঘরেয়ো ভোটর রাজনীতির আহ্বা লুঙো ধচ্ছেগোই সেক্কেত্তুন ধরি।

সিত্তুন ধরি ইক্কুনু সঙ চাঙমাঘুনোর রাজনীতির নাললো গমেদালে রিনি চেলে একখান হধা পরাগ পরাগ অহ্য়দে যে, তিবুরার চাঙমাঘুনে আঝলে নিজে হন রাজনীতি ন গরন, তারারে অন্য মানুঝে বা দলে রাজনীতি গরান্নে। চাঙমাঘুন হয়ত এভ রাজনীতির র-বাদাজ ন পেয়ে গরি একঘাচ্চে গরি থেলাক্কুন-যদিনা তারার ভোটতুনো লুভে হন দল আক্কোয় ন এধ’। ইলেকসনত জিদিদ’ গেলে ভোটর দরকার আ সে ভোটর হন জাত নেই। সেনত্তেই চাঙমাঘুনো ইধু যা পচ্চে বলে অহ্লে। হিন্তু চাঙমাঘুনত্তুন এ চেতনাঘান ন এলধে যে, ভারদ স্বাধীন ওহ্ইয়ে, তিবুরা পূর্ণ রেজ্য ওহ্ইয়ে, এবার আমাত্তুন আমি একজন পাধেবং দেঝ শাসনত আমার সুঘ দুঘর হধা হোভাত্তেই। যিয়ানরে হলঙুন আমি রাজনৈতিক চেতনা। যেককে মানুঝে রাজার আহ্নজামে দায়িত্বশীল সরকার দাবী গত্তন, তজিম রেজ্যত্তেই দাবী গত্তন – সেক্ষেনে চাঙমাঘুন এলাক অঘুর ঘুমত। এভ সঙ সে ঘুম ন ভাঙে।

চাঙমা নেতাঘুন রাজনীতি এক্কা উক্কো গত্তন ধরিনেই মূলতঃ কংগ্রেস আ সিপিআই(এম)- এ দিব্যা সর্বভারতীয় দলত থেনেই রাজনীতি গচ্ছোন। হিন্তু হন দলদোই তারা নিজর জাদর রাজনৈতিক গুরুত্ব বাড়েই ন পারন। সেনত্তেই তারা নিজর জাদর হন’ দাবীয়ো আদায় গরি ন পারন। উপজাদিঘুনো ভিদিরে জন সংখ্যাধি দিনম্বর অহ্না সত্বেয়ো এভ’ সঙ তারারে হন’ দলেই একখানত্তুন বেজ কেন্দ্রত নমিনেশন ন দে। তারার ভাষা সুমুত্তো হন’ ইস্যুই হন’ পাধির নির্বাচনী ইস্তেহারত জাগা জুরি লোই ন পারে। ইয়েনি ভেক্কানি চাঙমাঘুনোর রাজনৈতিকভাবে গুরুত্ব ন থানার কারনে – রাজনৈতিক অসচেতনতার কারনে। ইয়োত আমি তেকহাবা গরি সর্বভারতীয় আ আঞ্চলিক দলত আবুজি চাঙমাঘুনোর রাজনীতি গরিভার বৈশিষ্ট্যঘানি তলবিচ গরি পারিই –

১) সর্বভারতীয় দলত থেনেই রাজনীতি গরানা ঃ- তিবুরার হন’ রাজনৈতিক দলই উপজাতি ভোটতুন এলাফেলা গরি ন পারন। কারন তারার ইক্কো ডাঙর চিল্যার সমর্থন ছাড়া তিবুরাত হন দলই ক্ষমতাত তিগি থেই পাত্ত নয়। হিন্তু চাঙমাঘুনে হন সর্বভারতীয় রাজনৈতিক দলদই থক ন পান। কংগ্রেস বা কমিউনিস্ট বা তারার ছাত্র সংগঠনুনোর রেজ্য কমিটির মেম্বারর তালিকাঘানি চেলে সিয়ান পতপত্যা গরি বুঝি পারা যায়। সেবাদে এ দলুনোর ‘ত্রিপুরী তোষণ নীতি’ চাঙমা, মগ আ অন্য চিগোন-চাগোন উপজাতিঘুনোর রাজনীতিত ডাঙর ওহ্বার পধত গর ওহ্ই থায়।

২) উপজাতি ভিত্তিক আঞ্চলিক দলত থেনেই রাজনীতি গরানা ঃ- নাঙ উপজাতি ভিত্তিক রাজনৈতিক দল অহ্লেয়ো হিন্তু ইঘুন মূলতঃ ‘বরক জাতীয়তাবাদী’ রাজনৈতিক দল। ইঘুনোর উগ্র বরক জাতীয়তাবাদর ঠেলা চাঙমাঘুনোর আর বেজ গায় ন সুওয়।

হিন্তু উগুরোর দো জাদর রাজনৈতিক দলই চাঙমাঘুনোরে লারঝার গরন – তারার ভোটব্যাঙ্ক বারেবাত্তেই। চাঙমাঘুনোর রাজনৈতিকভাবে গুরুত্ব ন থেবার আর হয়েকখান কারন আঘে। সিয়েনি অহ্লদে –

১) ধারাবাহিক রাজনৈতিক তম্ভার অভাব ঃ- নেতার বেঘত্তুন ডাঙর হাম ভিলে নেতা বানানা। হিনতু চাঙমা নেতাঘুনে তারা বানেয়ে জাগাগানি আর গমেদালে ধরি রাঘেবাত্তেই হন’ নুও গাবুচ্যা নেতা তম্ভা তুলি ন পারন বেজভাগে।

২) নেতাগুনোর ঘন ঘন দল বদলনা ঃ- চাঙমা নেতাঘুন, বিশেষ গরি মাচ্ছেঙ আ চিগোন সাইজর নেতাঘুন হাক্কে হাক্কে দল বদলাদে দেঘা যায়। ফলে তারা লঘে সয়সাগর কর্মীরো হন’ রাজনৈতিক থিদাবি ন থায়। ফলে সামগ্রিকভাবে চাঙমা সমাজ এচ্ছে ‘ফ্লোটিং ভোটার’ত পরিণত ওহ্য়োন।

৩) নেতাগুনোর মধ্যে গম রাজনীতিবিদর অভাব ঃ- চাঙমা রাজনৈতিক নেতাঘুন হুব সহজভাবে নেতা ওহ্দাক চান। তারার অনেকর শিক্ষাগত যোগ্যতায়ো হম। ফলে তারার চিন্তা আ নেতৃত্বত গভীরতা ন থায়। তাছাড়া বেজভাগ নেতায় বিশেষ গরি মাঝারি আ চিগোন নেতাগুনে হন মতাদর্শগত বা ইস্যুভিত্তিক রাজনীতি ন গরন। তারার রাজনীতির লক্ষ্য হন দাবী আদায় বা হন মতাদর্শর থিদাবি ন ওহ্নেই সাধারণ চিগোন-চাগোন ব্যক্তি স্বার্থ – যেমন, চাগরী পানা, লোন পানা বা অন্যান্য সুযোগ-সুবিধে পানা- এধক্কে উদ্দেশ্য লোনেই রাজনীতি গরানার ফলে তারার হন স্থায়িত্ব ন থায়। যেধকদিন পর্যন্ত চাঙমাগুনর এ সুবিধাবাদী রাজনীতি থেব সেধকদিন পর্যন্ত চাঙমাগুনে আঝল রাজনীতির উদো ন পেভাক আ রাজনৈতিক পরিপক্কতা আ দূরদর্শিতায়ো ন জন্মিবো। এঝ সঙ নেতাঘুন সুমুত্তো তিবুরার গদা চাঙমা সমাজচোর হার’ জন ইধু হন’ স্থায়ী গুরুত্ব নেই।

বেগ’ জেরে চাঙমা রাজনীতির দিয়েন নুও পধ তলবিচ গরিবোঙ-

১) নুও বাবদর উপজাতি ভিত্তিক রাজনৈতিক সংগঠন ঃ– ইক্কুনর উপজাতি ভিত্তিক রাজনৈতিক সংগঠনুনোর এই উগ্র বরক জাতীয়তাবাদ হিন্তু একদিন এ বরক জাদিগুনোরেই ক্ষতি গরিব। তারার তারার মধ্যে অমিল বাদ দিলেও তিবুরার ১৯ চো উপজাতিত্তুন অর্ধেকর মত লোকসংখ্যা এ বরক জাদর বারে। অর্ধেক উপজাতির রানৈতিক উচ্ছাকাঙ্খা পূরণ অবার হন আরি ন থেলে বেসুনজুক দেঘা দেদে বাধ্য। সেনত্যেই বরক জাতীয়তাবাদর বিপরিতে বেক উপজাতিঘুনর লোকসংখ্যা অনুপাতে সুযোগ থায় পারা (অনেকটা হিল চাদিগাঙর আঞ্চলিক পরিষদর মডেল) এমন হন রাজনৈতিক প্লাটফর্ম খাড়া গরেলে বেঘর ইধু গ্রহনযোগ্য অহ্ব ভিলি আমার মনে অহ্য়।

২) চাঙমা ভিত্তিক নুও রাজনৈতিক দল বানানা ঃ– এত হম লোকসংখ্যালোই ছিনে-ছিন্নে চাঙমা বাম্মোই বানা চাঙমাত্ত্যেই হন রাজনৈতিক জধা বানেবার হধা হলে বেজভাগে অসম্ভব মনে গরিভাক। হিনতু কোয়ালিশন পলিটিকস্-র যুগোত হন হিচ্ছুই অসম্ভব নয়। সিয়েন এক্কান সহজ উদাহরন দিলেই বুঝো যেব’। মনে গরি হন এক্কান বামত ১০০ জন ভোটার আঘন আ সুওত দিবে ডাঙর দল আঘন। তারার সমর্থকর সংখ্যা মনে গরি, গেলে­ বারত জিন্নেদে ইভের ৬০ আ ন জিনেদে ইভের ৪০। এবাম্মোত মনে গরঙ ১০০ জনর ভিদিরে ৭০ জন চাঙমা। এই ৭০ জন চাঙমাত্তুন মুই যদি ১৫ জন ভোটারো টানি পারঙ্গে অহ্য় সালে মুই যে পাদিরে মনে অহ্য় সে পাধিরে জিদেই দি পারিম। আর মুই বিরোধিতা গরিম্মে পাধিবো জিবনে জিদি ন পারিবো। এস্যান পজিশনত এলে যেকোন ডাঙর দলই ত লঘে কোয়ালিশন গত্তে বাধ্য। ‘রাজনৈতিক অধিকার’ নিজে হন দাবী নয়। রাজনৈতিক অধিকার অহ্লদে পধ। পধ ন থেলে যেমন হন জাগাত্তুন হন জিনিষ আনি ন পারেগোই সেধক্ক্যে রাজনৈতিক অধিকার ন থেলে হন দাবী পূরণ অহ্বার নয়। সুনানু এম এন লারমা হোয়্যে “রাজনৈতিক অধিকার ন থেলে হন অধিকার তিগি থেই ন পারে।” আমার চেষ্টা থেব’ সেনত্যেই চাঙমাঘুনোর রাজনৈতিক চোগ ফুদেই তুলিনেই রাজনৈতিক অধিকারর পত্থান আগে বানানা দবদবা গরি, সালেই ইস্কুলত আমার চাঙমা অহ্রগে চাঙমা লেঘা চালু সুমুত্তো অন্যান্য হন দাবিই অপূরণ ন থেব’।

(বিঝুগুলো-৭, ২০০৫)

বিঝুগুলোর ১২ বঝর

দেঘদে দেঘদে ধর্মনগর চাঙমা ছাত্রগুনোর পত্তি বিঝু তাগিনেই ফগদাঙ গোচ্ছে হধা আলাম ‘বিঝুগুলো’র ১২ বঝর পুরেই গেল’। ডাঙর জাদর সাহিত্য অক্কে ১২ বঝর হিচ্ছু নয়। মাত্তর চাঙমাগুনোর বেলায়, বিশেষ গরি তিবুরার চাঙমাগুনোর হধা ঈদোত রাগেলে ইভ্যে আমার বেঘত্থুন বেচ দিন ধরি এঘামারে চলি এচ্ছে হধা আলাম। আগেদি তিবুরাত যিধুক্কো হধা আলাম জনম লোয়োন ভেক্কুন নানান তুচ্ছেত ভচ যেয়োন। আজলে তোগেই চেলে, একমাত্র সরকারী ‘ত্রিপুরা সদক’, ‘মাদি’ আ আগরতলার ‘বিঝু ফুল’রে ফারক গরিলে হন’ ইক্কো হধা আলাম পাচ বঝরো পুরেই পাচ্ছোনগরি আমার ঈদোত ন’উধে। এক মাত্র ‘বিঝুগুলো’য় পুরেই পাচ্ছে ১২ বঝর। এ পইদ্যানে পুরোনী ছাত্রগুনে বিঝুগুলোর জনমথান ধর্মনগর কলেজত্থুন পাশগরি (নিত্তাগে ধর্মনগর কলেজ হোস্টেলত্থুন) নিহ্গিলি যানার পরেয়ো বিঝুগুলোরে পুরি ফেলেই ন’পারানাঘান বেঘত্থুন ডাঙর কারন ঈজেবে হাম গোচ্ছে। সেবাদে, ১৯৯৯ সালত ‘বিঝুগুলো’ জনম লোনার পরে যিঘুনে ধর্মনগর কলেজত বঝরে বঝরে পড়িবাত্যেই এচ্ছোন তারায়ো হন’ দিন ‘বিঝুগুলো’রে পর ন’ভাবন। ‘বিঝুগুলো’ ১২ বঝর পুরেই পারিভার বেঘ’ জেরর আ বেঘত্থুন ডাঙর কারনান অহ্লদে ধর্মনগরর চাঙমা চাগুরীবলাগুনোর অজিরেন বলাবল।

১৯৯৯ সনত যেক্কে পংকজ চাকমা আ মর বরভেই অরুন কান্তি চাকমা বিঝুগুলো নিহ্গিলেবার তেম্মাঙ গরধন সেক্কে মুই রাবারর ডিপ্লোমা গরিবেত্যেই কেরালার ত্রিচুরোত। মরে অরুন কান্তিদা আ পংকজর গুরো ভেই প্রনবে হধাগান চিধিদি জানেয়োন। শুনিনেই মর ভারি গম লাক্কে। কারন মর নিজোর আগরতলাত্থুন ফগদাঙ গোচ্ছে ১৯৯৬ সনর ‘নুও সদক’ আ ১৯৯৭ সনর ‘তুমবাচ’ এক বঝরত্থুন বারা ন’ নিহ্গিলে। ভাবিদুঙ, কেরালাত্থুন ফিরিনে চাগুরী পেলে হিচ্ছু একখান গরা পরিবো। সেক্কে মর চাঙমা হধা হোভার সমার বানা হয়েকখান ত্রিপুরা সদক পত্রিকা আ ঘরত্থুন লেকখে চিধিগানি। সে সময়ত বিঝুগুলো ফগদাঙর হধা গম লাগিবারোই হধা। মাত্তর, গাল ন’ মাদিলে ইয়েন খাম খায়ই পরে যে, সেক্কে মুই স্ববনেয়ো ভাবি ন’ পারঙ সে বিঝুগুলোবো এক দিন ১২ বঝর পুরেই পারিবো আ মুই সুওত এসান একখান লেঘা লিগিবার জু পে’ম।

১৯৯৯ সনর অদ্ধা-অদ্ধিত কেরালাত্থুন ফিরিনে যেক্কে ২০০০ সনর বিঝুগুলো ছাবেবার অক্ত এল’ মরে অরুন কান্তিদা পাদেল’ বিঝুগুলো ছাবেবার বলাবল দিবালি­ত্তে। সেক্কে কলেজ হোস্টেলত অনিন্দ্যদা, চন্দন কুসুমদা, গজ কুমারদা আর’ হন্না হন্না থেদাক। সেক্কে আজলে নাঙে ধর্মনগর কলেজর চাঙমা ছাত্রগুনে বিঝুগুলোবো নিহ্গিলেলেয়ো বানা পংকজ আ অরুন কান্তিদা এলাক তার সঙভাক নানু (পরর বঝর গজ কুমারদা দাঘি আমলত্থুন ধরি তে’ বিঝুগুলোবো জাত গরি ধর্মনগর কলেজ ছাত্রগুনোর নানুগিরিত এচ্ছে)। তারার হধায় বিঝুগুলোবোর শেষ হধা। তারারই হধা মজিম সেক্কে ধর্মনগর কলেজর ছাত্র ন’ অনা সত্তেয়ো ২০০০ সনর বিঝুগুলোবোর অনিন্দ্যদা লঘে মর জুর কাবিদ্যেঙ ওহ্বার হবাল ওয়ে। লেঘা থুবোনা, বোইবোর ধক বানানা, কাবিদ্যাঙ’ র’ লেঘানা – ইয়েনিয়ো মুয়োই গরি পেয়োঙ। মর এভ’ মনত আঘে, হার একখান লেঘা লোনেই এক দিন রেদোত চন্দন কুসুমদা আ মর বিরেত হধার ঘেই হা-হি চলে­। যা ওহ্ক, সে নাদাভো আমি বর বেচ দোল গরি ন’ পারিই মাত্তর খুব হম হরজে ছাবেয়েই। সে বঝর আমা তেঙা উত্তোন ২৫০০ উগুরে মাত্তর আমার খরচ ওয়েদে বানা ২৪২০ তেঙা না হধক। আ বেঘত্থুন ডাঙর হধা, তেঙাঘুন সিঘুন ভেক্কুন এচ্ছোন এডভার্টিজমেন্টত্তুন।

সিত্থুন ধরি এভ’ সঙ মর বিঝুগুলো লগে ঘুনজি-মুনজি ন’ হমে। আগরির ১১ নাদাত্থুন ৬ বুয়ো নাদার (২০০০, ২০০৩, ২০০৪, ২০০৫, ২০০৬, ২০০৭) মুই ধাল জুগুলেবার আ কাবিদ্যাঙ’ র’ লিঘিবার জু পেয়োঙ। ২০০৩ সনত পলিম বিঝুগুলোভো অফসেটে ছাবা ওয়ে। গেলে­ ১১ নাদার ভিদিরে মর মনে অয় বেঘত্থুন সানে আ সাজে গম ওয়ে আট্ট্য বারর নাদাভো (২০০৬) ।

এই ১২ বঝরে বিঝুগুলো হি পাচ্ছে আ হি ন’পারে আমি যদি তোলেই চে’ই সালে দেভঙ বিঝুগুলো ফগদাঙ গরিভার যে মনঝুক, ‘বিঝুগুলোর বিজিত্থুন একদুবো অসীম রায়-জনেশ আয়ন-নিরঞ্জন পালেই তুলোনা’ (দি-পল­ার নাদার কাবিদ্যাঙ’ র’)-সিয়েন হিঝু অলেয়ো ধুজি পাচ্ছে। এ বিঝুগুলেদই হলম ঘজি নিজরে বলপেয়ে বানেয়োন পংকজ, কুসুম কান্তি, অরুন কান্তি, বিজয়া, কুসুসিং, কুসুম, মতিলাল আ অনেগে। তবে বিঝুগুলোর চাঙমা সাহিত্যরে বেঘত্থুন ডাঙর বলাবল পারাপাঙ চিগোন গল্প লেগিয়ে চাঙমা অজিত কান্তি ধামেই-য়রে আবিষ্কার। বিঝুগুলো একমাত্র তারেই জাত গরি নানু হোলেই পারে। বাগিগুনে বিঝুগুলো ছাড়ায়ো তিবুরার জুদো জুদো হধা আলামত নিজেরে মেলি ধরিবার চেয়োন। মাত্তর অজিতর এচ্ছে সঙ বে’ক নাঙ হিনি পারে পারা লেঘানি বিঝুগুলোয়ই ছাবেই দ্যে। সেবাদে তিবুরার কলেজে কলেজে হধা আলাম ফগদাঙরো পথ ফুরেয়ে বিঝুগুলো। এর ফলে সয়সাগর হজমা গাবুচ্যে-গাবুরীয়ে নিজোর লদক-ধদক হলম্মোয় লাজেইে লাজেই লেকেখে লেঘাগানি ছাবেয়ে ওক্কোরলোই চেবার জু পেয়োন। যিগুনোর হয়েকজন ইক্কুনু গদা চাঙমা জাদর বার গরিবার পঝা ওহ্বাত্তেই বাচ্ছেই আঘন।

তে বিঝুগুলোর বেঘত্থুন লদক-ধদক খুদোভো হুভো ? আমি হভঙ, এভ’ সঙ দর’মর’ ফগদাঙি জধা বানেই ন’ পারানাঘান বিঝুগুলোর বেঘত্থুন তল পোচ্ছে হত্থা। যার প্রমান আমি পেয়েই ২০০৮-অর বিঝুত বিঝুগুলো ফগদাঙ গরি ন পারানার মধ্যেদি। তবে ইয়েন বেক কলেজ ভিত্তিক হধা আলামরই একখান উনো হত্থা। কারন বঝরে বঝরে কাবিদ্যেঙ বদলি পায়, হাম্মো বদলি পায়। বে’ক বঝর সঙ সঙ কাবিল কাবিদ্যেঙ কলেজত ন’ এঝন। যার ফলে বিঝুগুলো বা অন্য কলেজ ম্যাগাজিন অনসুর আহ্দি পায় এক নাল্যা সুদো উগুরেধি। বিঝুগুলো আ এক্খান হাম ন’ পারে, সিয়েন অলদে তিবুরার বে’ক পয়নাঙী লেগিয়েগুনোরে তা বুঘোত তানি ন পারে। একমাত্র ভবন্তু বিকাশ চাঙমা আ অনিল বরন চাঙমা বাদে হন’ জন ফয়নাঙী লেগিয়ের লেঘা বিঝুগুলো অনসুর ছাবেবার জু ন’ পায়। চাকমা অসীম রায়. জনেশ আয়ন চাকমা আ নিরঞ্জন চাকমা দি-একখান লেঘা মাত্র বিঝুগুলোরে দ্যন। সেবাদে কাকলী, যোগমায়া, বহ্নিশিখা – ইগুনোর হন’ লেঘা বিঝুগুলোত নেই।

এবার জেরর পাদানিত তেকহাবা গরি বিঝুগুলোর বেক নাদাগুনোর চিন-পচ্ছো তুলি ধরা অহ্ল’ –

নাদা-১, ১৯৯৯

Bijhugulo-1, 1999 - Copy.jpg

জুর কাবিদ্যাঙ
পংকজ চাকমা আ অরুন কান্তি চাকমা
কবিতা
পংকজ চাকমা, গৌতম চাকমা, সুপর্ণা খীসা, ঝানুদেবী চাকমা, অরুন চাকমা, পরিমল চাকমা, পুর্নিমা চাকমা (দিভ্যে), ঝানুদেবী জাকমা, সুচিত্রা চাকমা, বিমলেশ্বর চাকমা, বভ্র“ বাহন চাকমা (দিভ্যে), অরুন কান্তি চাকমা, চিত্রা মলি­কা চাকমা, হিমানী চাকমা, সুপর্না চাকমা।
গল্প
প্রণব চাকমা, ঝানুদেবী চাকমা।
প্রবন্ধ
পংকজ চাকমা।

নাদা-২, ২০০০

Bijhugulo-2, 2000 - Copy.jpg

জুর কাবিদ্যাঙ
কুসুম কান্তি চাকমা আ অনিন্দ্য চাকমা
কবিতা
চাকমা অসীম রায়, অনিল বরন চাকামা, ঝানুদেবী চাকমা, অরুন চাকমা, পংকজ চাকমা, অরুন কান্তি চাকমা, বিজয়া চাকমা, সঞ্জীব চাকমা, জ্ঞানন্ত চাকমা, প্রীতি কিশোর তালুকদার, উজ্জ্বল চাকমা ছোটু,
শাক্য মনি চাকমা, ঋষি জনেশ আয়ন চাকমা, পুলিন বয়ন চাকমা
(শেজর তিন জনর কবিতা আরেক বার ছাবানি ওয়ে)।
গল্প
ভবন্তু বিকাশ চাকমা, প্রদীপ চাকমা।
প্রবন্ধ
তেজবন্ত ভিক্ষু, অনিন্দ্য চাকমা, চন্দন কুসুম চাকমা, হর প্রসাদ শাস্ত্রী (ভাচ বদল ঃ প্রণব চাকমা), গঙ্গাজয় চাকমা, নির্মল চাকমা।
নানানথান
চিত্রা মলি­কা চাকমা, ক্ষীরোদ চাকমা, পুর্নিমা চাকমা, গজ কুমার চাকমা,
ভুবন চাকমা, উৎপল চাকমা।

নাদা-৩, ২০০১

Bijhugulo-3, 2001 - Copy.jpg

জুর কাবিদ্যাঙ
গজ কুমার চাকমা আ উৎপল চাকমা
কবিতা
নিরঞ্জন চাকমা, অনিল বরন চাকমা, হিমানী দেববর্মা, গজ কুমার চাকমা, অরুন চাকমা, ভুবন চাকমা, সি. আর. শান্তি, সুনিল কান্তি চাকমা, সুচরিতা চাকমা, সুব্রত চাকমা, অরুন বিকাশ চাকমা, তন্ময় চাকমা,
রঞ্জিত চাকমা, উৎপল চাকমা, অরুন কান্তি চাকমা, জ্ঞানন্ত চাকমা।
গল্প
বিজয়া চাকমা, অনিন্দ্য চাকমা, ঝানুদেবী চাকমা, যুধিষ্ঠির চাকমা,
জ্ঞানন্ত চাকমা, প্রদীপ চাকমা।
প্রবন্ধ
ধীমা চাকমা, পংকজ চাকমা, ভবন্তু বিকাশ চাকমা, প্রবাল বর্মন।

নাদা-৪, ২০০২

Bijhugulo-4, 2002 - Copy.jpg

কাবিদ্যাঙ
জ্ঞানন্ত চাকমা
কবিতা
অনিল বরন চাকমা, পংকজ চাকমা, চিত্রা মলি­কা চাকমা, অনিন্দ্য চাকমা, বিজয় বাহন চাকমা, চিত্রা মলি­কা চাকমা, সমর কান্তি চাকমা, রঞ্জিত চাকমা, সুব্রত চাকমা, কুসুসিং চাকমা, জ্ঞানন্ত চাকমা, রিপন চাকমা (চিচ্ছুং), বি. পি. অরুন বিকাশ চাকমা, বাবু মতিলাল চাকমা, অনিল বরন চাকমা (বাদল), সুশান্ত
চাকমা (আবু), ম্যাগলিন সিং চাকমা, চন্দক চাকমা, ঝানুদেবী চাকমা।
গল্প
ধনঞ্জয় চাকমা, রাজীব চাকমা, প্রদীপ চাকমা।
প্রবন্ধ
শোভা রঞ্জন চাকমা, অজিত কান্তি চাকমা, সমর কান্তি চাকমা (তালুক),
উদয় জ্যোতি চাকমা, আশীষ চাকমা, ফুল সদক চাকমা।
নানানথান
শুক্র কুমার চাকমা।

নাদা-৫, ২০০৩

Bijhugulo-5, 2003 - Copy.jpg

কাবিদ্যাঙ
কুসুম কান্তি চাকমা
কবিতা
অনিল বরন চাকমা, পংকজ চাকমা, গজ কুমার চাকমা, সুচরিতা চাকমা,
প্রিয় শান্তি চাকমা, নয়ন দেওয়ান, মঙ্গল ধন চাকমা,
ম্যাগলিন সিং চাকমা, গপ্পো রাজ বংশী।
গল্প
পিজি কুসুসিং চাকমা, বিজয়া চাকমা।
প্রবন্ধ
ধীমা চাকমা, আশিষ চাকমা, বিশাল চাকমা।
নানানথান
টুলু চাকমা।

নাদা-৬, ২০০৪

Bijhugulo-6, 2004 - Copy.jpg

কাবিদ্যাঙ
মতিলাল চাকমা
কবিতা
অনিল বরন চাঙম, অরুন কান্তি চাকমা, ঝানুদেবী চাকমা, ভান্তে সাধনানন্দ, চাঙমা সমর কান্তি হাম্ভেই, অনিল বরন চাকমা, চাঙমা সুশীল জীবন, জুয়েল চাঙমা, রাহুল কান্তি চাকমা, কৃষিরাম নক্খাম,
মঙ্গল ধন চাকমা, মনিশংকর চাকমা।
গল্প
বিজয়া চাকমা, পিজি কুসুসিং চাকমা, চাঙমা অজিত কান্তি ধামেই,
প্রীতিময় চাকমা, বুদ্ধিমান চাকমা।
প্রবন্ধ
বি. বি. চাকমা, ফুল সদক চাকমা, উচ্ছে হিটলার দেওয়ান,
প্রিয়ানন্দ স্থবির, অজিত বরন চাঙমা।
নানানথান
কে. এন. অনিমেষ চাকমা, উদয় জ্যোতি চাকমা,
বচ্চন চাকমা, ফুল সদক চাকমা।

নাদা-৭, ২০০৫

Bijhugulo-7, 2005 - Copy.jpg

কাবিদ্যাঙ
কুসুম চাকমা
কবিতা
যুধিষ্ঠির চাকমা, কুসুম চাকম, অরুন চাকমা (সানী), সজীব চাকমা, জগৎ জ্যোতি চাকমা, কুসুম কান্তি চাকমা, উদয় জ্যোতি চাকমা, অভিজিৎ চাকমা, সাক্সেস (নিলা), নাক্ক চাকমা, তজিম দেওয়ান,
রাজ কমল চাকমা, সাধন মিত্র চাকমা, পিজি কুসুসিং চাকমা,
গঙ্গা চাকমা, নবজ্যোতি চাকমা, রমেশ চাকমা।
গল্প
হরি কিশোর চাকমা, কুসুম চাকমা, প্রদীপ চাকমা।
প্রবন্ধ
ভবন্তু বিকাশ চাকমা, ফুল সদক চাকমা, পংকজ চাকমা, সুবোধ চাকমা, বলভদ্র চাকমা, জে.এস. সুরজিৎ চাকমা।
নানানথান
হাম্ভেই অনিমেষ চাকমা, পি.জি. কুসুসিং চাকমা,
দেবংশী চাকমা, নিরঞ্জন চাকমা।

নাদা-৮, ২০০৬

Bijhugulo-8, 2006.jpg

কাবিদ্যাঙ
বুদ্ধিমান চাকমা
কবিতা
চাকমা অসীম রায়, পংকজ চাকমা, জনেশ আয়ন চাকমা, অনিল বরন চাকমা, বাদালী চাকমা, পিংকি চাকমা, পংকজ চাকমা, বিঝু চাকমা, স্তিতি চাকমা, মিনতী চাকমা, পরিমল চাকমা, কুসুম কান্তি চাকমা, অরুন কান্তি চাকমা, মোহন্ত চাকমা, মায়াল চাকমা, পঞ্চু চাকমা, ওঙ্গো বি. কাম্বা, সজীব চাকমা, ললিতা চাকমা, প্রশান্ত চাকমা, জগৎ জ্যোতি চাকমা, স্রোতি বিকাশ চাকমা,
মনি শঙ্কর চাকমা, সুজাতা চাকমা।
গল্প
মন্দিরা চাকমা, হিটলার দেওয়ান, অজিত বরন চাকমা,
সুকরমি চাকমা, দীপান্বিতা চাকমা।
প্রবন্ধ
ভবন্তু বিকাশ চাকমা, হাম্বেই, কুসুম চাকমা, উপম বিকাশ চাকমা,
প্রধীর তালুকদার, রেগা।
নানানথান
অনিমেষ চাকমা, ধনীরাম চাকমা, বিন্দু বাসিনী দেওয়ান,
অজিত বরন চাকমা, বিমল চাকমা।

নাদা-৯, ২০০৭

Bijhugulo-9, 2007.jpg

কাবিদ্যাঙ
রমেশ চাঙমা
কবিতা
কুসুম চাঙমা, মন্দিরা চাঙমা, ধজর চাঙমা, নবজিৎ (নরোত্তম) চাঙমা, ফুল সদক চাকমা, সাধন চাকমা, জ্ঞানন্ত চাকমা, মায়াল চাকমা
গল্প
উদয় জ্যোতি চাকমা, সোনাই চাকমা।
প্রবন্ধ
ভবন্তু বিকাশ চাকমা, অনিরুদ্ধ চাকমা, ওঙ্গো বি. কাম্বা।
নানানথান
চাকমা অসীম রায়, উমেশ কান্তি চাকমা, সুভাষ চাকমা, পংকজ চাকমা।

নাদা-১০, ২০০৮

Bijhugulo-10, 2009.jpg

কাবিদ্যাঙ
সুভাষ চাঙমা
কবিতা
মালবিকা চাঙমা, মন্দিরা চাঙমা, নীলা চাঙমা, চিত্রা মলি­কা চাঙমা, নিপম চাকমা, সঞ্জীতা চাকমা, ধনঞ্জয় চাকমা, মিঃ এ. কে. চাঙমা, ধুজি রায় (চাকমা), রন্টু জীবন দেওয়ান, রূপম চাঙমা, সম্ভুলাল চাঙমা,
অরুন বিকাশ চাঙমা, তমসা চাঙমা, ধ্বজর চাঙমা।
গল্প
সুচিত্রা চাকমা, উদয় জ্যোতি চাঙমা।
প্রবন্ধ
প্রাঞ্জল চাকমা, ভবন্তু বিকাশ চাকমা, প্রদীপ সাঙমা, পংকজ চাকমা,
অমর শান্তি চাকমা
নানানথান
ধ্বজর চাকমা, সুভাষ চাকমা, অরুন বিকাশ চাকমা।

নাদা-১১, ২০০৯

Bijhugulo-11, 2010.jpg

কাবিদ্যাঙ
ধর্মাশোক চাঙমা
কবিতা
সঞ্জীতা চাঙমা, রেমি চাঙমা, চিত্রা মলি­কা চাঙমা, সুমিত চাঙমা,
কৌশিক চাকমা, সেবিকা চাকমা, পংকজ চাকমা, চাঙমা ধরনী রঞ্জন,
অর্থদর্শী শ্রমণ, বিজয় চাঙমা, লক্ষী রানী চাঙমা, তমসা চাঙমা, শুভম চাঙমা।
গল্প
চাঙমা অজিত কান্তি ধামেই, নিপম চাকমা, উদয় জ্যোতি চাঙমা।
প্রবন্ধ
কুসুম কান্তি চাকমা, মতিলাল চাকমা, ভবন্তু বিকাশ চাকমা,
দেবপ্রিয় চাকমা, প্রদীপ চাঙমা।
নানানথান
উজ্জয়ন চাঙমা, ধর্মাশোক চাকমা, জীবন চাকমা,
রমেশ চাকমা, মন্দিরা চাঙমা।

বিঝুগুলো ১২ বঝরর আলাম-সাম্মু, ২০১১

KEYBOARD LAYOUT OF CHAKMA FONTS : A COMPARATIVE STUDY

The most used Chakma fonts in India are Chakma(SuJayan) created by Dangu Er. Jayan Chakma and Sujoy Chakma and Punongjun created by Dangu Er. Jayan Chakma. District School Education Board, Chakma Autonomous District Council (CADC), Mizoram is using Chakma(SuJayan) in their Text Books and here in Tripura we are using Punongjun. In Dechhul (CHTs), Indigenous Cultural Institute, Rangamatye used Chadigang fonts in its Text Books. Recently, Bivuti Chakma and Jyoti Chakma of Ribeng IT Solutions, Rangamatye developed Alaam fonts in collaborating with Indigenous Cultural Institute. They were also successfully developed the only Chakma Unicode font RibengUni. Earlier, there were two fonts in use in Dechhul namely BijoyGiri DPC (created by Deba Priya Chakma) and NishanChakma.

It means, by 2012, we are having at least five ASCII (American Standard Code for Information Interchange) fonts and one Unicode font to write in Chakma. But the problem is. we cannot use all the fonts easily due to different keyboard layouts of each font. The font developers did not followed a fixed pattern while placing fonts in the keyboard. As example, if we learn `a  s d f g / ; l k j h’ formula for English typing, we can use all the fonts available in Roman scripts. Similarly, if we learn `Bijoy’ in Bengali, we can use almost all fonts available for writing in Bengali except Amar Bangla, Satyajit and some other minor systems. But in Chakma, every time we want to use a new font for designing or for some other reasons, we have to learn the new font’s keyboard layout first, which is a time consuming and irritating process.

Now, what is the solution? This paper tries to search for a proper solution for it and proposes a new keyboard layout for a broader consensus. Before that, let us have a look at the present keyboard layouts used by the different Chakma font creators.

Keyboard layouts of Chakma fonts can be broadly divided in to three groups :

(1) 𑄇𑄎𑄞𑄋𑄚 group: This group used a easy formula in their layouts just like qwerty in case of English keyboard layout. Chakma(SuJayan) and Punongjun falls under this group. In this system prominent fonts were placed in prominent places and vowel strokes were put (with Shift option) as per their articulation, eg.  𑄨 (Banhi dena) at I and 𑄪 (Ek tan) at U etc. Sometimes, the vowel strokes were placed as per their appearance like 𑄨 (Banhi dena)  was placed at O in Chakma(SuJayan).

chang india.jpg

(2) BijoyGiri group: This layout solely rested upon the pronunciation of the fonts and placed them keeping in mind the similarity with English fonts, eg. 𑄇 at k, 𑄈 at K, 𑄃 at a etc. This is identical with Amar Bangla layout in Bengali. BijoyGiriDPC and Chadigang falls under this group.

bijoygiri.jpg

(3) Bijoy group: Mostafa Jabbar, the famous developer of Bengali writing software `Bijoy’ included a incomplete set of Chakma fonts namely Bijoy Changma in his Bijoy software. He used Bijoy keyboard layout in Bijoy Changma also which was created especially for typing in Bengali. Later on the Chakma font creators followed the layout. NishanChakma, Alaam and RibengUni are based on this layout.

nishanchakma.jpg

You can see a comparison between different layouts in the chart below.

Kye comparision copy.jpg

The question is can’t we create a unified layout for all Chakma fonts ? We asked the question to Dangu Bivuti Chakma, co-creator of Alaam and RibengUni in November 2012 when he released RibengUni. While Dangu Bivuti readily agreed to our proposal but he insisted for a consensus through a conference/seminar between Indian and Bangladeshi Chakmas which involves a substantial amount of time and money. Then what to do ? We tried to search for a middle path to avoid those constrains. We prepared a layout, then mailed it to Bivuti to review the same in Ribeng IT Solutions. After their approval, we named it MaadiRibeng Layout and tried to use it in Punongjun font. No doubt we found it excellent.

What is the basis of this new layout ? Before going to that let us have a look at the English keyboard layout. The top 5 most used English characters are e, a, t, i & n followed by o, r, s, h, l, d, m, u, c, g respectively. It is clear that these frequently used characters were place without shift and in the prominent zone of the keyboard. Similarly, we have to place our most used characters without shift and divide the load equally between left and right hand for easy typing. So, we tried to find out the most used characters in Chakma scripts.

Chakma symbols according to use sl.jpg

The MAADI team conducted a detailed survey of 145 Chakma articles with 15,388 words published in MAADI and other publications to find out the most used Chakma characters. Study revealed that the top ten used Chakma characters are Ubor tulye (𑄧), E kar (𑄬), Banhi dye (𑄨) Ra (𑄢), Ek tan (𑄪), Na (𑄚), Ba (𑄝), Ra machye (𑄢𑄴), O kar (𑄳𑄅𑄧) and Ma (𑄟) (details are in the above chart). So, we must place these characters without shift for speedy typing. It was the principle guideline in preparing MaadiRibeng Layout combined with pronunciation theory for easy memorization of the layout. Below is the proposed layout :

MaadiRibeng.jpg

New Indian Keyboard.jpg

We request the respected Chakma font creators to review the layout and suggest appropriate alternations. We must agree to a common layout as soon as possible and change the layouts of the existing fonts as per a common layout to make them user friendly. It is also felt that more and more fonts with different looks are needed to add variety in the Chakma Scripts Store. We must give rounds of applause to the Chakma font creators which maybe the greatest achievement by the Chakmas by the beginning of the twenty second millennium.

তিবুরা: চাঙমা লেঘার পইদ্যানে পরাক পরাক হয়েকখান হধা

 

আকহধা

তিবুরাত চাঙমাগুনোর জননাদা প্রায় এক লাখর ইন্ধি-উন্ধি। ১৯-চো উপজাতির মধ্যে চাঙমাঘুন জননাদাধি দি নম্বর আ গদা তিবুরাত চাঙমাঘান তিন নম্বর ডাঙর ভাষা। তিবুরার লোকসংখ্যার ৩% আ উপজাতি লোকসংখ্যার ১২.৫% চাঙমা। বেচভাক চাঙমা তিবুরার দেরগাঙ, মনুগাঙ, ফেনীগাঙর হুরে হারে আদামানিত বজত্তি গত্থন। মোটামুটি রাজা কৃঞ্চ মানিক্যর আমলত্থুন ধরি (১৭ শ শতক) গুমেদত আ ১৮ শতকর শেজত্থুন ধরি দেরগাঙত চাঙমাগুনোর বজত্তির বিজগী মাজারা তোগেই পা’ যায়। পড়া-শুনোধি তিবুরার চাঙমাঘুন সারেপারা আক্কোলেয়ো উবর হাবর পেশা বা সরকারী চাগরীত তারা এভ’ লেমপোচ্যে। গদা তিবুরাত বানা ১৫ জন চাঙমা টিসিএস/টিপিএস, চের জন বানা কলেজর মাস্টর, হন’ আইএএস অফিসার নেই, এক জন বানা উকিল – ইয়েনিয়ে গমেদালে চাঙমাগুনোর উনোঘান ফগদাঙ গরে। রাজনীতিদিধ’ তারা আর’ বেচ লেমপোচ্যা। চের পাচ্যান এডিসি/বিধানসভা সিদোত চাঙমাঘুনোর জয়-পরাজয় ঠিক গরিভার ক্ষমতা থেলেয়ো তারা হন’ দিন এক্কানত্থুন বেচ কেন্দ্রত – সিয়ে এডিসি ওহ্ক বা বিধানসভা, হন’ দিন জু ন’ পা’ন। তিবুরার চাঙমাগুনোর নিজস্ব হন’ রাজনৈতিক দল নেই বা এমন হন’ দলো নেই যিবে চাঙমা হজমা নেতাগুনোরে লারেগরি রাজনীতি শিগি নেতা ওবার সুযোগ দিবো। যার ফলে ইধু নেতা অনাগান বেজাদি নেতাগুনোর দয়ের উগুরেই ভর গোচ্যে। সেনত্যায় তারা নিজর জাদর সুখ-দুগোর হধা যেত্তোমান ভাবন সিত্থুন বেচ ভাবদে বাধ্য অন হি গরিলে ‘উতারা’ খুজি ওবাক। আর ঠিক ইয়োদই তিবুরার চাঙমাগুনোর বে’ক ফ্রন্টত অহ্দি যেবার শুরু।

চাঙমা লেঘা হেত্তেই দরকার

আমি যে যে কারনে চাঙমা লেঘার পক্ষে সওয়াল গরিই তার হয়েকখান মুলুক কারন অলদে :-

ক) চাঙমা লেঘাগান বানা চাঙমাগুনোর নয় গদা ভারদরই পুরোনি পোতপোত্যা সভ্যতার একখান মাজারা। গদা ভারদত প্রায় এক আহ্জারর হাজাহাচ্যা হধা থেলেয়ো উকখোর আঘন ২০ বাবদরো হম। ভারত সরকারে পুরোনি বিজগী মাজারাগানি বাজেই রাগেবাত্যায় যদি কোটি কোটি তেঙা খরচ গরি পারে সালে চাঙমা লেঘা বাজেই রাগেবাত্যায় হেত্তেই হয়েক লাখ টেঙায়ো খরচ গরি ন’পারিবো ? ভালক্কানি ডাঙর ডাঙর ভাষা আঘে যিয়েনির হন’ নিজর অরক নেই। চাঙমা উক্কোরুন আমা জাদর বার গরি পারে পারা পুরোনি বিজগর চিন্নক ভিলি আমি মনে গরিই। সেনত্যায় সিঘুন ধরি রাঘানা আমা জাদর আরাঙ ধক্কান বজায় রাগেবাত্যায় এগ’পরা দরকার। ভারদর সংবিধানর ২৯(১) ধারাত পোতপোত্যা গরি তুলোপারা আঘে, যে হন’ জাদর নিজর ধগর ভাষা, লেঘা আ বা সুধোম থেলে সিয়েনি বাজেই রাঘেবার তারার অধিকার থেব’ (29(1) Any section of the citizens residing in the territory of India or any part thereof having a distinct language, script or culture of its own shall have the right to conserve the same.)। সেনত্যায় এ ওকখোরুন বাজেই রাঘেবাত্যায় চাঙমাগুনো লঘে কেন্দ্র আ রেজ্য সরকাররো উজেই এজানা দরকার।

খ) চিগোন জাত অনার কারনে চাঙমাগুনে বিজগর নাললো নিজ’ সুবিধেমত ফিরেই ন’ পারন। উগুধো, বিজগে তারারে থুত্যা বোয়েরর সান বার বার উড়েই নেযেয়ে যিন্নি মনে হয় সিন্নি। ১৪ শতকর আগে একদল আমাত্থুন ছিনি রোয়োন বার্মার (ইক্কুনুর মায়ানমার) আরাকান বামত। তারা দৈংনাক্যা নাঙে পরেধি নাঙ হোলেয়োন। আ আমারে নাঙ দুওন আনক্যা মানে পঝিম কুল্যা। ইক্কুনু যেমন দেঝকুল্যা চাঙমাগুনে তিবুরার চাঙমাগুনোরে হন উত্তর কুল্যা। ১৬-১৭ শতকত দৈংনাক্যা চাঙমাগুনোর ইক্কো দল আরাকানত্থুন এনেই আমা লঘে জুক দুওন্নি। সিগুনোই পরেধি তোঙতোঙ্যা নাঙে চিনপচ্য ওহ্য়োন। ১৯৪৭ সনত ভারত স্বাধীনর লক্কে মনে মনজক্কা গরি আমা দেশচান ভাক গরি দুওন। হিঝু চাঙমা বাম পচ্ছে তিবুরার লঘে আ হিঝু চাঙমা বাম মিজোরাম (সেক্কেনর আসাম প্রদেশ)-র লঘে। বেচভাক চাঙমা যে বামত রই গেলাক সে হিল চাদিগাঙান সিধুগোর মানুশচুনোর মনর হধা থুবি মারি ফেলেই দিনেই সিয়েন ভরেই দিলাক মুসলিম জাতীয়তাবাদী দেঝ পাকিস্থানর ভিদিরে। সে বাদে বড়গাঙর গধা পানিত ডুবো খেই ১৯৬৪ সনত প্রায় ৪০ আহ্জার চাঙমা (যিঘুন ইক্কুনু ১ লাখ) ভারদত পার ওনেই অরুনাচল প্রদেশ (সেক্কেনর NEFA) -ত পরঙ ওহ্ই পেয়োন্নি। একলঘে এই ইধুক্কো মানুঝোর পরঙ অনাগান ‘বড় পরঙ’ ঈজেবে নাঙ পেয়ে।

এই যে বিজগর ঘুলোন্যাত পড়ি দেঝে-বিদেঝে চাঙমাঘুন ছিনেছিন্যে ওহ্ই পোচ্যন, যার ফলে তারা পত্তি বামত নাদাগুলেগত পরিনত ওহ্ই পেয়োন। পত্তি বামর ভৌগোলিক ভেইল মজিম তারার খাচ্যেক, উড়োন-পিনোন, হধা বদলি যেয়েগোই। মাত্তর ভেক্কানি বদলি যেনেয়ো দিয়েন জিনিচ এভ’ সঙ তারা বুঘোত আজা গরি রাঘেয়োন – সিত্থুন একখান অলদে বুদ্ধ ধর্মঘান আরক্কান এ চাঙমা লেঘাগান। আমা আনক্যাগুনোসান তোঙতোঙ্যা আ দৈংনাক্যাগুনেয়ো এভ’ সঙ এগই চাঙমা লেঘা লারচার গরন। সেনত্যায় চাঙমা লেঘাঘান আমা গদা পিত্থিমির চাঙমাগুনোর মিলিবার – আনক্যা-তোঙতোঙ্যা-দৈংনাক্যায় মিলিবার একখান দবদবা পধ ওহ্ই পারে।

গ) ইক্কো জাদর দি বাবদর অরক ওহ্ই ন’পারে। যদি অহ্য় সালে তারার বৌদ্ধিক (Intellectual) সম্পত্তিগানি ভাক ওহ্ই যাদে বাধ্য। আমি যদি বাংলাধি লেঘা-লেঘি গরিই – মিজোরাম আ অরুনাচলর চাঙমাগুনে পড়ি ন’ পারিবাক। আ তারা রোমান অরক্কোই চাঙমা হধা লেগিলে আমি সেত্তোমান জুত গরি পড়ি ন’ পারিবোঙ। ওক্কোর ফারক অহ্লে মনো ফারক ওহ্ই যেব’। সিঙিরি আমা ভিদিরে ফারক্কান আর’ বেচ অঝার অহ্ব’। সিয়েন ন’ ওহ্বাত্যায় আমার হামাক্কায় চাঙমা লেঘাঘান ভেক্কুনোর ঝাদিমাদি লারচার গরিভার আক্যাং গরিভার দরকার।

ঘ) বে’ক শিক্ষে কাবিলুনে হোই যেয়োন চিগোন অবুঝ গুরোরে শিক্ষের পত্থম হাবত শিক্ষে দেদে নিজর হধার সান গম আর হিচ্ছু ওহ্ই ন’পারে। সেনত্যায় আমি চাঙমা বামর প্রাথমিক স্কুলানিত চাঙমা হধাদি শিক্ষে চালু গরিভার দাবী বার বার তুলিই। আর চাঙমা হধাদি শিক্ষে দেদে হামাক্কায় দরকার চাঙমা লেঘা। যার যে ভাষার একখান নিজস্ব ধক থায়। সে ধকমজিম শদেশত বঝর ধরি আক্যাঙত্থুন তারার নিজস্ব মুওর হধানি লিঘিবাত্যায় নিজে ওকখোর বানান আ নয় হন’ জাদত্থুন গঝি লন। পর’ জাদত্থুন গঝি ললেয়ো পল্লাত পল্লাত সিঘুন লারচার গরানার ফলে তারার এমন একখান ধার বঝে অন্য ওকখোরলোই পরেধি আর ঠে খাবেই ন’পারে। সেনত্যায় পয়নাঙী চাঙমা হধা হাবিল সুনানু জয়ন চাঙমা হয়, চাঙমা লেঘা ছাড়া চাঙমা হধা শুদ্ধ গরি লিঘি ন’পারে। আর চাঙমা লেঘা ছাড়া চাঙমা গ্রামার বানায়ো উদোল দড়িলোই খাচ্যাঙ বুনে পারা অহ্য়। চাঙমা হধার verb-পুনোর যে root সিগুন ছাগি লোই পারে একমাত্র চাঙমা লেঘাধি ভাঙিলে। সে বাদেয়ো, বাংলা ভাষা যেমন রোমান অক্ষরেধি শিগেনা আহ্জি এঝে পারা, ইংরেজী ভাষা দেবনাগরী ওক্কোরেধি শিগেনা ভাবি ন’পাচ্ছে, ঠিক সেজান চাঙমা হধায়ো বাংলা ওক্কোরেধি শিগেনা মানি লোই ন’পাচ্ছে। আমা বুদ্ধিজীবীঘুন ভালোকভিলোম ধরি চাঙমা হধা লেঘদে বাংলা অহ্রক লারচার গত্থন হেনেই সিয়েন চোঘোত ন’পরে, মাত্তর ভাবিলে ব্যাপারান এগই।

ঙ) ভারদর সেন্সাস রিপোর্টত চাঙমাগানরে বাংলা ভাষার একখান ধেলা ঈজেবে দেঘানি অহ্য়। ২৫ জন বানা লোকসংখ্যার আন্দামানিজ ভাষার ভারদর সেন্সাস রিপোর্টত আলাদা গরি নাঙ আঘে, খামিয়াং, গোদাবরী, পশ্চিম গুরুং, ওঙ্গে, মুগোম – এ চিগোন চিগোন ভাষাগানির নাঙ আঘে – ইয়েনির লোকসংখ্যা ভেক্কানির ১০০ -র ভিদিরে, হিন্তুু গদা ভারদত চের লাখ লোকসংখ্যার চাঙমা ভাষাগানর নাঙ নেই। কমিশনার অফ লিঙ্গুইস্টিক মাইনরিটিজ অফ ইন্ডিয়ায়ো চাঙমাগানরে আলাদা ক্লাসিফায়েড ল্যাঙ্গুয়েজ ভিলি মান্য ন’গরে। ইয়েনির ভেক্কানির কারন অহ্লদে আমার বাংলাধি লেঘা-লেঘি গরানা। বেজাদি গবেষক্কুনে চাঙমা হধার নমুনা কালেকশন গরিলে সিয়েনি বাংলাধি লেঘা অহ্নার কারনে তারা সিয়েনি খুব সহজে পড়ি পারন আ দেঘন বেচভাক হধানি বাংলাধি মিলে। যার ফলে তারার উজু সিদ্ধান্ত অহয় চাঙমাঘান বাংলার উপভাষা। আমি যদি পত্তমত্থুনধরি চাঙমাধি লেঘা-লেঘি গরিদোঙ সালে নমুনাঘান দেঘানার লগে লগেই – ইয়েন একখান পুরোপুরি জুদো ভাষা – এ হধাগান গবেষক্কুনোর মনত হামাক্কায় জাগিলুন। সেনত্তেই আমা ভাষাগান যে জুদো একখান আলাদা ভাষা, ইয়েন কন’ বাংলার উপভাষা নয় এ হধাগান প্রমান গরিবাত্তেই আমার চাঙমা ওক্কোরুন বেজ গরি লারচার গরিভার দরকার আঘে।

তিবুরাত চাঙমা লেঘা আন্দোলন

ভাবিলে অক্তে অক্তে আমক ওহ্ই পায় যে, জিয়েনত্তে আঝলে আমার হন’ আন্দোলনরই দরকার ন’ এল’ সিয়েনত্তে আমি আন্দোলন গরি পে’র। আর ইয়েনো সত্য যে আন্দোলন বলতে জিয়েন বুঝোয় সে বাবদর হন’ আন্দোলন চাঙমাগুনোর তপ্পেত্তুন এভ’সঙ তিবুরাত হন’ দাবী আদায়ত্তেই হন’ কালেই ন’ অহয়। জিয়েন ওহ্ইয়ে সিয়েন অহ্লদে অক্তে অক্তে ঈদোত তুলি তুলি হয়েক জনে মিলিনেই মন্ত্রীগুনোসিধু ডেপুটেশন দেনা। সিত্তুন বেচ আক্কোদে পাদারা চাঙমা মনত পুঝোর জাগে, ‘‘ও তারা হি ভাবিবাক ?’’ যা ওহ্ক, আন্দোলন গরা ন’পরে হঙর এ কারনে :-

১) স্কুলোত চাঙমা হধা চালু অহ্লেদ’ গারেগায় চাঙমা লেঘা চালু ওহ্বার হধা। ইংরেজচুনে হি ভারদত পত্থম সলাত ইংরেজী শিক্ষে চালু গরদে হন’ প্রচলিত ওক্কোরলোই ইংরেজী শিগেবার চেষ্ঠা গচ্যন ? নাহি হন’ ভারতীয় ভাষা সে ভাষার ওকখোর ফেলেনেই জুদো বাবদর ওকখোরদি শিগেনা শুরু গচ্যন ? ভাষা চালু অহ্লে সে ভাষার যদি নিজস্ব ওকখোর থান সিঘুন চালু ওহ্বাগোই।

২) তিবুরা সরকারর মন্ত্রীত্থুন ধরি আমলাসঙ বেঘে বার বার হোয়োন চাঙমা ভাষা ভালেদী শল্লাদারী কমিটিয়ে (Advisory Committee for Development of Chakma Language) সুপারিশ গরিলে তারার চাঙমা লেঘা চালু গত্তে হন’ আপত্তি নেই। সে শল্লাদারী কমিটির মানুচ্যুন ভেক্কুন চাঙমা। আমার আমন’ মানুচ। সেনত্যায় আমাত্তুনোই আমি চাঙমা লেঘাগান মাঘি পে’র। জিয়েন আঝলে আমনরে চিতপুরেপারা।

এবার তেকহাবাগরি চাঙমা লেঘা দাবীর পত্থান এক্কেনা পিঝেদি ফিরি রিনি চা’ যোক। পত্থম সলাত ১৯৭৪-৭৫ সনত যেক্কে সুনানু মোহিনী মোহন চাঙমাদাঘি স্কুলোত প্রাইমারী থরত চাঙমা সাবজেক্ট চালু গরিভার দাবীঘান তুল্যন সেক্কেনে বাংলা অহ্রক্কুন হিয়ো জনর মনদো ন’এলাক। এ জাগুলুক্কান পত্থম ভেদা দিয়ে ১৯৮৩ সনর ১১ নভেম্বর যেক্কে সরকারে পত্থম বারত্তেই অনিল কুমার চাঙমারে সভানানু গরি চাঙমা ভাষা ভালেদী শল্লাদারী কমিটি বানেয়ে। সেক্কে তে পত্থম বারত্তেই এডিসি মেম্বার ওয়ে। গাবুচ্যা, তোকতোক্যা কার্বারী। সিইএম নারায়ন রুপিনী আ শিক্ষেমন্ত্রী দশরথ দেবর লগে দোল উধন-বঝন। শল্লাদারী কমিটির সভানানু ওহ্নেই তে আরকানি নেযেল’ ইস্কুলোত চাঙমা ভাষা চালু গরিভার। মাত্তর জোল বোদিলো বই ছাবেবার হধা উধিনেই। হিঙিরি ছাবেব’ চাঙমা বই ? চাঙমা লেঘা ছাবেবার হন’ প্রেসধ’ নেই ? সে বারদই পত্থম প্রস্তাব উত্থে চাঙমা লেঘার বদলে নাহি বাংলা অহ্রক লুও অহ্ব’ ? জাগুলুক সির নেযেবাত্যায় শল্লাদারী কমিটিয়ে ১৯৮৪ সনর ২১ আ ২২ জানুয়ারী মাছমারাত বিরেট গরি সম্মেলন ডাগিলো। সম্মেলনত দেঘা গেল’ বাংলা অহ্রগর পক্ষে হন’ জন নেই, ভেক্কুনে চাঙমা লেঘার হিত্যাধিই রায় দিলাক। অনেগে এমনই হুমকি দিলাক যদি বাংলা ওকখোরধি বই ছাবানি অহয় সালে সিঘুন তারা পুড়ি ফেলেই দিবাক। সে গন্ডগুলোত অনিল চাঙমা তার এডিসি মেম্বার থেবার সময়ানত (১৯৮৩-৮৮) আর চাঙমা লেঘা চালু গরি ন’পারিলো।

১৯৮৮-৯২ সঙ তিবুরার ক্ষমতাত এল’ কংগ্রেস-টিইউজেএস জোট সরকার। চাঙমাগুনোত্থুন এমএলএ এল’ ধনীছড়ার সুশীল কুমার চাঙমা। তে চাঙমা লেঘা চালু ন’ অহ্নার কারন আমলাগুনোর তাল বাহানা ভিলি মনে গরে। সে সময়দই শুনো যেয়ে শিক্ষা ক্ষেত্রে নুও ওকখোর চালু গরদে ভিলে হি কেন্দ্রর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকর অনুমোদন লাগে। এমএলএ নানুর নেতৃত্বেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক’ লঘে যোগাযোগ গরি জানা গেল’ নুও ওকখোর যদি সে জনগোষ্ঠীয়ে চান্নে অহয় সালে তারার হন’ আপত্তি নেই। হিন্তু সুশীল কুমার চাঙমায়ো তা আমলত চাঙমা লেঘা চালু গরি ন’পারে।

এ বে’ক ঘটনানিয়ে চাঙমা ভাষা আন্দোলনানরে বদলি দিনেই বানেয়ে চাঙমা লেঘা আন্দোলন। চাঙমাগুনে আর চাঙমা ভাষা চালু গরিভার দাবী ন’গরন, বদলে দাবী গরন চাঙমা ওক্কোর চালু গরিভার।

১৯৯৩ সনত আর’ ফিরি এল’ অনিল কুমার চাঙমার আমল। এবার তে এডিসি মেম্বার নয় এমএলএ। এর মধ্যে অভিজ্ঞতা তার যেমন বাচ্যে ক্ষমতায়ো বাচ্যে। এ সময়দই তার নেতৃত্বে নুও দমগে চাঙমা লেঘা চালু গরিভার আরকানি গরিবাত্যায় যেনেই ঘদি গেল’ তিবুরার চাঙমা লেঘা আন্দোলনর বেঘত্থুন রহস্যজনক ঘটনাঘান।

ঘটনার শুরু ০৮-১০-১৯৯৩ তারিগোত। সেদিনর শল্লাদারী কমিটির বৈঠগত চেরান সিদ্ধান্ত লুও ওয়ে। ১) চাঙমা লেঘাদি প্রাথমিক থরর বই বানানা আ চাঙমা অহ্রক্কুন স্বীকৃতি দিবাত্যায় সরকাররে হোজলী গরানা, ২) চাঙমা লেঘা চালু গরিভার পইদ্যানে দোলেই জানিবাত্যায় ইক্কো টিম সিএডিসি পাধানা, ৩) চাঙমা টেকস্ট বই বানেবাত্যায় দি জন চাঙমা ভাষা কাবিল ডেপুটেশনে লেঙ্গুয়েজ সেলত আনানা আ ৪) ট্রাইবেল লেঙ্গুয়েজ সেলর অফিসচান নুও জাগাত নেযানা। (সেক্কেনে টিএলসি অফিসচান উমাকান্ত হোস্টেলর হুরে উমাকান্ত স্কুলোরই দিব্যা-তিন্নো গুধি লোনেই এল’)

মাত্তর আমক ওহ্বার হধা, এ সিদ্ধান্তগানির শেজর দিয়েন কার্য্যকরী অহ্লেয়ো পত্থম দিয়েন আঝল সিদ্ধান্ত আর বহন’ দিন বাস্তবায়ন ন’ অহ্য়। হেত্তেই ন’ অহ্য় সে পইদ্যানে জেরর মিটিঙানিত বার বার হধা তুলো ওয়ে। মাত্তর সিয়েনি বাস্তবায়ন গরিবাত্যায় শল্লাদারী কমিটিয়ে সরকাররে চাপ ন’দিনেই উগুধো শিক্ষে দপ্তরর মাধ্যমে No.F.19(8-11)-DSE/88(2-3)/850-58, dated, Agartala, the 05-09-1995 নং চিধিমূলে ঘোষনা গরিলো যে চাঙমা সাবজেক্ট স্কুলোত বাংলা লেঘাদি চালু অহ্ব’। খবরান শুনোনার লঘে লঘে চেরোপালাত্থুন জগার উধিলো। মায়-মুরুব্বীগুনে শল্লাদারী কমিটির সভানানু অনিল চাঙমারে বেরেই বেরেই ধরিলাক। অজমনে ১১-১২ নভেম্বর’১৯৯৫ তারিগোত এল’ পেজাত্তলত অল ইন্ডিয়া চাকমা কালচার‌্যাল কনফারেন্সর সম্মেলন। ইন্ধি এডিসি ইলেকশন এঝঙ এঝঙ। শুনো যেয়ে, বিবদত্থুন উদ্ধোর ওহ্বত্যায় অনিল চাঙমা দুমুরি যেয়ে মুখ্যমন্ত্রী দশরথ দেবর সিধু। তাত্থুন মু নপে’ই লুহ্ঙেগোই শিক্ষে মন্ত্রী অনিল সরকারর সিধু। এবার অনিল সরকারে তা মিস্টার অনিল চাঙমারে বাজেবাত্যায় যেনেই গরিলো একখান বিরেট ভুল। তে চাঙমা লেঘা চালুর পইদ্যানে ক্যাবিনেট সিদ্ধান্ত নিভার আরকানি ন’ গরিনেই সরাসরি নিজ’ ক্ষমতা বলে অনিল চাঙমারে হোই দিলো তোমা চাঙমা অহ্রক্কুন শিক্ষে ক্ষেত্রে ক্লাস থ্রি সঙ চালু গরা অহ্ল’। সরকারী নোটিস নিহ্গিলিলো। যার নাম্বার No.F.19(8-11)-DSE/88(L-3)/1061-73, dated, Agartala, the 02-11-1995।

এ খবরান অনিল চাঙমা শল্লাদারী কমিটির ১৩-১১-১৯৯৫ তারিগোর মিটিঙোত জানেলে সুওদ খুজির বরব’ খেলি যায়। সে দিনোর মিটিঙোত ‘চাঙমা পত্থম পইধ্যা’ নাঙে বইভো শিক্ষে দপ্তরর সিধু অনুমোদনত্তেই পাধানি অহ্য়। সভাত্থুন মুখ্যমন্ত্রীর উদিঝে মাননামা আ প্রেস রিলিজো দিয়ে অহ্য়। রেডিওত, পত্র-পত্রিকাত হুর হুর গরি খবর নিহ্গিলিলো চাঙমা লেঘা চালু ওয়ে ভিলি। মাত্তর না ছাবা অহ্ল’ ‘চাঙমা পত্থম পইধ্যা’ না চালু অহ্ল’ চাঙমা লেঘা। এক বঝর পরে ৩১-০৮-১৯৯৬ তারিগোর শল্লাদারী কমিটির মিটিঙোত জানি পারা গেল’ যে ‘চাঙমা পত্থম পইধ্যা’ বইভোর আহ্দে লেকখে কপি সুমুত্তো গদা চাঙমা ভাষা ভালেদী ফাইল্লো অফিসত্থুন আহ্জি যেয়েগোই।

গদা চাঙমাঘুন রাগে-ধুন্দুগে-আমগে অলর ওহ্লাক। এবার হাম চলিলো তলে তলে, লারে লারে। শল্লাদারী কমিটিয়ে ঠিক দিবঝর পরে ১০-০৮-১৯৯৮ তারিগোত চুর গরি সিদ্ধান্ত গরিলো বাংলা অহ্রক গঝি লোভার। সিয়েন সরকারে তার UO.No.256/Min/Edn/99 dated 01-04-99 চিধি মোতাবেক মানি ল’ল। সে অনুযায়ী ২০০৪ সনর ২১ মে পত্থম বারত্যায় ৯ য়ান স্কুল লোনেই বাংলা লেঘাদি চাঙমা হধা চালু গচ্ছোন। সে পরেধি সিয়েনি একবার ২০ য়ান, আরেকবার ২৯ য়ান – এ দি দফায় বাড়েনেই ইক্কুনু ৫৮ য়ান চাঙমা বামর স্কুলোত বাংলা লেঘাধি চাঙমা ভাষা চালু আঘে। নাঙে চালু অহ্লেয়ো সে স্কুলানিত পড়েবাত্যায় এচ্চে সঙ হন’ মাস্টর রিক্রুট গরা ন’ অহ্য়। সে স্কুলানিত ঘেচ্চেকগরি চাঙমা সাবজেক্ট পড়ানি অহ্র না ন’অহ্র সে উধো লোভারো হন’ গরচ শল্লাদারী কমিটিয়ে মনে ন’গরে।

এই যে ২৭ বঝর ধরি চাঙমা ভাষা ভালেধির নাঙে চিগোনগুরো খারা চলের ইয়েনিত্যাই দায়ী হন্না ? তিবুরার বে’ক চাঙমাঘুনে একলঘে হোভাক, দায়ী শল্লাদারী কমিটি। সরকারে ন’ মানে, আমলাগুনে নানা বাবদর গর দুওন, চাঙমা লেঘার মাস্টর নেই, চাঙমা বই ছাবেই ন’পারে, ফাইল আহ্জি যেয়েগোই, বই আহ্জি যেয়েগোই, লারে লারে চেষ্ঠা গরির – এ বাবদর হন’ যুক্তি দিনেই তারা তারার পাপত্থুন রেহাই ন’ পা’ন।

চাঙমা লেঘা চালু ন’ অহ্নার পিঝেধি আঝল কারনানি তলেধি ছাগি লোভার চেষ্ঠা গরা অহ্ল’ –

১) চাঙমাগুনোর ঔপনিবেশিক মানসিকতা ঃ রোগ চাবি থলে গম নয়। পরাক পরাক গরি হলে ভালা যে, যুগ যুগ ধরি চাঙমাঘুন পরর রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, অর্থনৈতিক অধীনত্তল থাগদে থাগদে ইক্কুনু শিঙোরসঙ ঔপনিবেশিক মানসিকতালোই আক্রান্ত। যার ফলে আমি ‘রাধামন’রে বানেই ‘রাধা মোহন’ আ ‘ফেজাত্তল’রে বানেই ‘পেঁচারথল’। আমা তেম্মাঙসভাত একজন বেজাদি গরবা এলে আর আমা মুওত্থুন চাঙমা হধা ন’ নিহ্গিলে। যা হিঝু পন্ডিগি জিনিচ আমি তারার ভাষাধি লেঘিবার চেষ্ঠা গরিই কারন ‘তারা’ ন’ বুঝিলে হিচ্ছু লাভ নেই, চাঙমাঘুনদ’ হিচ্ছু নয়। ঠিক এ কারনেই হন’ মিটিঙ সেমিনারত চাঙমা লেঘার দাবী গরিলে আমা শল্লাদারী কমিটির সজাগ চাবাঙীগুনে মনত তুলি দুওন, ‘‘ভেজাল গরিলে ইক্কুনু পেত্তেই সিয়েনিয়ো আর ন’ পেভঙ।” যেন চিগোন গুরোরে বুঝোই পারা, ‘‘পেজাল গরিলে মামা আর পিধে ন’দিবো!” ইয়েনর কারনে চাঙমাগুনে বানা চাঙমা লেঘা নয়, অন্য হন’ দাবীই আদায় গরি ন’ পারন।

২) রুধুকমরা শল্লাদারী কমিটি ঃ তিবুরাত সরকার বদলে, শাসক দল বদলান, শল্লাদারী কমিটির সভানানু আ অন্যান্য মেম্বারুন বদলি যান – মাত্তর একজন ন’বদলে – সে মহা শক্তিশালী মেম্বারবোই বকলমে শল্লাদারী কমিটির সভানানু। বাগী চাবাঙীগুনোরে তে তার মনেমনজক্কাগরি ভরাই। সিগুনোর বেচভাগর হন’ লেঘা-লেগি গরিভার অভিজ্ঞতা নেই। তারাত্থুন সেত্তোমান শল্লাদারী কমিটিত থেবারো মন নেই। সে বলবান মেম্বারবোই কমিটিত তার বলবলা বজায় রাঘেবাত্যায় দুনিয়ে উধিচ নপেয়ে মেম্বারুন গদা তিবুরাত্থুন তোগেই নিহ্গিলায়। গদা তিবুরার চাঙমাগুনোর সমর্থন আঘে, সে বাবদর কাবিল মেম্বারলোই কমিটিবো নুও গরি বানেলে আমার আঝা, মিছিল-মিটিঙ-আন্দোলন হিচ্ছু ন’গচ্ছে গরিই চাঙমা লেঘা চালু অহ্ব’।

৩) মেম্বারুনোর চাঙমা লেঘা ন’ জানানা ঃ বেচভাক মেম্বারেই চাঙমা লেঘা ন’জানন। যার ফলে তারার চাঙমা লেঘার হিত্যা দয়ে নেই, মেয়েয়ো নেই। থেলেদ’ তারা হন আমলত চাঙমা লেঘা শিগিলাক্কুন। এবার সে চাঙমা লেঘা ন’ জান্যে মানুচ্যুনোর আহ্দত যুদি চাঙমা লেঘাদি টেক্সট বই বানেবার ভার পরে তারাধ’ চোঘেদি আন্ধার দেবাগোই। পরর আহ্দদো দায়িত্ব দিবার ন’চান, সালে তারার নাঙর ভুদিবো এক্কা অহ্লে হমিবো। ইন্ধি বাংলাধি অহ্লে তারা চোখ হাহ্দিয়ো লিঘি পারন। সালে পথ বানা একখান, সরকাররে বাঝেই দিনেই চাঙমা লেঘাগান যিঙিরি সিঙিরি ঠেগেই রাঘানা। লাগিলে জমা দিয়ে টেক্সট বোয়ুনো ঘুবেই দেনা। এ নাঙ লোনেই সলাসলি গরানার কারনে বানা চাঙমা লেঘাদি লেকখে বই নয়, বাংলাধি লেকখে চাঙমা টেক্সট বইয়ো ট্রাইবেল ল্যাঙ্গুয়েজ সেলর অফিসত্থুন আহ্জি যেয়োন্নোই একমাত্র বোয়ুন সে মহা শক্তিশালী চাবাঙীবোর লেকখে ন’অনার কারনে। চিত্রা মল্লিকা চাকমা আ গঙ্গ্াজয় চাকমা লেকখে ‘সদরক’ আ অনিল কুমার চাকমা আ ফুলেশ্বর চাকমা লেকখে ‘গণিত’ – এ দিব্যা ক্লাস ওয়ানর বোয়োরে শল্লাদারী জধার ১৫-১০-১৯৮৭ তারিগোর মিটিঙোত অনুমোদন দিয়ে অহয়, মাত্তর সিঘুন আর পরেধি তোগেই সুক পা’ ন’যায়।

ইক্কু দেঘা যোক চাঙমাগুনোর নিজস্ব সুধোমর লেঘা থানা সত্বেয়ো হেত্তেই সরকারে বাংলা অহ্রক গঝি লোয়ে সে পইদ্যানে হনে হি হন। ইয়োত আঝল তিন্নো দলর হধা তুলি ধরা অহ্ল’ ঃ-

১) SCERTঃ–  চাঙমা ভাষা ভালেদী শল্লাদারী কমিটিবো মূলতঃ এ SCERT -র আহ্নজামে হাম গরে। বাংলা, ককবরক, চাঙমা, বিঞ্চুপ্রিয়া মনিপুরী, মনিপুরী এ ভাষাগানির যার যে লাক স্কুলোত পড়িভার বই বানানা তার কাম। তারার মতামত মানবলা ডিরেক্টরে RTI-র আহ্নজামে এক পুঝোরর জুওবত No.F.21(3-1)-TLC/SCERT/97(L)/6049, dt.25-03-2008 চিধি দিনেই তিবুরা চাঙমা ছাত্র জধার কাবিদ্যাঙরে জানেয়ে, বাংলা অহ্রক গঝি লুও ওয়ে চাঙমা ভাষা ভালেদী শল্লাদারী কমিটির হধা মজিম। ১৭ অক্টোবর ২০০৭ সনত সেক্কেনর স্কুল শিক্ষে মন্ত্রী কেশব মজুমদারে চাঙমা ছাত্র-গাবুচ্যার ইক্কো দল তা সিধু চাঙমা লেঘা দাবী গরিনেই ডেপুটেশন দিবাত্যায় গেলে তেয়ো এগই হধা হোয়ে। তা মতে, তোমার (মানে চাঙমাগুনোর) শল্লাদারী কমিটির হধা মজিম তিবুরা সরকােের চাঙমা ভাষার পইদ্যানে বে’ক কামসিরি আহ্দত লয়। তারা যদি চান্নে অহ্য় চাঙমা অহ্রক গঝি লোভার সালে সরকারর হন’ আপত্তি নেই।

২) শল্লাদারী কমিটির চাবাঙীগুনোর মতামত ঃ– ন’জন চাবাঙী, একজন সভানানু আ একজন কনভেনর (শ্যামলী দেববর্মা, ডেপুটি ডিরেক্টর, এসসিইআরটি), জন গদে গদে হন’ জনেই চাঙমা লেঘার মুজুঙো-মুজুঙি বিরোধ ন’গরন। তারা বেচভাগে হন্নে তারায়ো চা’ন চাঙমা লেঘা চালু ওহ্ক, মাত্তর সরকারে ন’মানিলে তারা হি গরিভাক ?

৩) শল্লাদারী কমিটির সভানানুর মতামত ঃ– শল্লাদারী কমিটির সভানানু মানবলা এমএলএ সাহেবে। তেয়ো হধা তুলিলে উগুধো ন’গরে, মাত্তর ইক্কো না ইক্কো দেম অনসুর তুলে। যেমন, ১৭ অক্টোবর ২০০৭ সনত কেশব মজুমদারর হধাঘান শুনোনার হয়েকদিন পরেই সেক্কেনর ‘মাদি’-র কাবিদ্যাঙ কুসুম চাঙমা, সেক্কেনর চাঙমা ছাত্র জধার কাবিদ্যাঙ অনিরুদ্ধ চাঙমা, প্রদীপ চাঙমা সমেত হয়েক জনে তাল্লোই তার মাছমারার ঘরত তেম্মাঙ গরিবাত্যায় যেয়োন। তারে যেক্কে হোয়োন্নোই তিবুরা সরকারে ভিলে তোমা শল্লাদারী কমিটিয়ে সিদ্ধান্ত নিলেই চাঙমা লেঘা চালু গরি দিবো, তদা তাঙরি তে হলেদে, ‘‘চাঙমা লেঘা চালু অহ্লে হন্না পড়েভ’ ? দুও না মরে সার্টিফিকেটবলা চাঙমা মাস্টর। মুই ইক্কে চাঙমা লেঘা চালু গরি দোঙর।”

তার এ হধাগানর উগুরে ভর দিনেই তিবুরাত CADC-র বলাবলে পেজাত্তল লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলোত তিনমাস্যা চাঙমা লেঘা সার্টিফিকেট কোর্স ২০০৮ সনর ৫ জানুয়ারী ফাঙ গরা ওয়ে আ সিত্তুন ৩৮ জন মাধ্যমিক পাশ ছাত্র/ছাত্রী গমেদালে পাশগরি নিহ্গিলি এচ্যন। আগেধি হোয়েধে সার্টিফিকেটবলা চাঙমা মাস্টর পেলেই তে চাঙমা লেঘা চালু গরি দিবোদে হধাগান পুরি ফেলেই গেল্লে ১২ সেপ্টেম্বর ২০১০ তারিগোত গদা তিবুরা চাঙমা ছাত্র জধার হজমা গঝি ল’না ফাঙ সভাত তে মতামত দিলঘিদে চাঙমা লেঘার ভিলে বিশারদ নেই। যে জাগাত তিবুরাত চলন্দি ককবরক, বিঞ্চুপ্রিয়া মনিপুরী এ ভাষাগানি পড়েবাত্যায় উজু উজু মাধ্যমিক পাশ বা ফেল অহ্লেই চলে, আমা এমএলএ নানুর হেত্তেই চাঙমা লেঘা পড়েবাত্যায় তিনমাস্যা সার্টিফিকেট কোর্সে ন’হুলোর ? হেত্তেই তার চাঙমা লেঘাদি বিশারদ পরানে মাঘের ?

মুজুঙোর পধ

উগুরোর বে’ক হধানি থুবেনেই রিনি চেলে আমাত্থুন শল্লাদারী কমিটির গাফিলতি বার বার নজরত এঝে। যে জাগাত গদা তিবুরার চাঙমাগুনোর তপ্পেত্তুন চাঙমা লেঘাগান স্বীকৃতি পেভার লাড়েয়োত তারা মুজুঙোর সুরোত থেবার হধা এল’ সে জাগাত শল্লাদারী জধার সভানানুভো হাক্কে ইয়েন হাক্কে উভোন হোনেই চাঙমা লেঘার দাবীঘান বিজিদি ফেলেই দেগোই। হয়েকজন মেম্বারেধ’ চাঙমা লেঘার হধা তুলোদেই ডরান। যদি ডরান সালে সিত্তুন পদত্যাগ গরিলেই তারা পারন। আ একজন মেম্বারেধ’ উল্লোগরি চাঙমা লেঘার হধা তুলিলে সভামায় হন’ জনরে অগমান গরদেয়ো তুদি পড়ি ন’থায়। সেয়ান্যা গরি সভামায় তা অগমান গরা হাহ্নাত্থুন বিমল মমেন চাঙমা, ফুলেশ্বর চাঙমা (দুওজন শল্লাদারী কমিটির আগরির চাবাঙী), কুসুম কান্তি চাঙমা – হন’ জন বাদ ন’যান। অথচ তার জানা আঘে, এক হালে মনিপুরীগুনে বাংলা অহ্রক গঝি লোনেই হি ভুল গচ্যন। ইক্কু তারা সরকার সুমুত্তো তারার নিজস্ব ওকখোরুন মনিপুরোত চল গরিভার চাধন, মাত্তর ন’পাত্তন।

সেনত্যায় আমার ইক্কুনু যিয়েন পত্থম দরকার সিয়েন অহ্লদে শল্লাদারী কমিটিত্থুন চাঙমা লেঘার দাবীঘান আদায় গরানা। তাত্তেই কামসিরি এতাভিদিরে শুরু ওয়ে। গেল্লে অক্টোবর মাহ্জর ৩১ তারিখ পত্তি শল্লাদারী কমিটির চাবাঙীগুনোসিধু মুকপাত্তি (Representative) ডেপুটেশন দিয়ে ওয়ে। নভেম্বর মাহ্জর ২৮ তারিখ গণ স্বাক্ষর লোনেই আ ডিসেম্বর মাহ্জর ২৫ তারিখ গণ ডেপুটেশন দিয়ে অহ্ব’। তুও ন’ অহ্লে ইঙিরি লারে লারে গরি আন্দোলন গিয়ের গরিনেই চাবাঙীগুনো ঘর’ মুজুঙে গণ অবস্থান, অনশন এমনকি আমরন অনশন সঙ দরকারমজিম আন্দোলনান টানি নেযা পরিবো। এর মধ্যে ফেব্র“য়ারী মাহ্জর শেজাশেজিত পারিলে গদা তিবুরার চাঙমা বামানিত একখান বাইক র‌্যালী গরিভার আরকানিয়ো ঈজেবর ভিদিরে রাঘা ওয়ে। আন্দোলনর চাবত পড়ি শল্লাদারী কমিটি চাঙমা লেঘা চালু গরিভার সুপারিশ গরিনেই রেজিলিউশন পাশ গরিনেই শিক্ষা দপ্তরর আহ্দত জমা দিলেতে সেক্কে শুরু অহ্ব’ আন্দোলনানর পরর পইদ্যাবো।

শেজহধা

তবে ইয়েনো সত্য হধা যে, বানা সরকারীভাবে চাঙমা লেঘা চালু গরিভার দাবীঘান আদায় গরানাই শেজ হধা নয়। যদি আমি বেচভাগে চাঙমা লেঘা পড়ি ন’পারিই, লেখক-সাহিত্যিক্কুনে চাঙমা লেঘা লারচার ন’গরন আ চাঙমা লেঘাদি পত্র-পত্রিকা, বই-পত্র অনসুর গরি ন’ নিহ্গিলে সালে চাঙমা লেঘা আন্দোলনর আঝল উদ্দেশ্যগানই শিঙোরসঙ বজঙ ওহ্ই যেবগোই।

চাঙমাগুনোর পালেবার দিন

পত্তি জাদর নাঙহিনি পারে পারা হয়েকজন মানুচ থান, যিগুনে তারার নিজর গুনে বানা নিজর ঘোরবোর/হুদুম্মোর/আদাম্যার ন থান। কাবিল হাম আ অঝার বুঘোর গুনে তারা ওহ্ই উধোন জাদর পত্তি মানুঝোর সদর হুদুম। সিগুনোর হধা জাদর পত্তি জনে জনে বার বার ঈদোত তুলোন। আর এধেক্কেয়ো হয়েকখান ঘটনা থায়, সুঘোর বা দুঘোর, যিয়েনি তারা পুরি ফেলেই ন’ পারন। বঝর ঘুরি সে দিন্নো এলেই বেঘর মনত আভর খায় সে দিন্নোর কধা। সে মানুচ্চুনোরে, সে ঘটনাগানিরে ঈদোত তুলোনাই অহ্লদে দিন পালানা।

এ দিন পালানার মধ্যেদি ইক্কো জাদে তার নিজস্বতা তোগেই পায়। জাদর হজমাগুনে, যিগুনে একদিন জাদর পাত্তলী ওহ্বাক তারা জাদর আগরির লাড়েইয়র বিজকর লঘে চিনপচ্য অহ্ন। ইক্কো জধার কর্মী গঠন গরদে অনসুর কামসিরি বাদেয়ো এবাবদর দিনুন পালানা অমহদ’ দরকার। গেল্লে ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১০ পেজাত্তলত যে গদা তিবুরা চাঙমা ছাত্রগুনোর তেম্মাঙ ওয়ে সুওত তারা চাঙমা গুনোর হয়েক্কো দিন পালেবাক ভিলি এগেম গচ্ছোন। সে দিনুন লোনেই এচ্চের তেকহাবা তেম্মাঙান।

১. চাঙমা লেঘা দিন (৫ জানুয়ারী) : ২০০৯ সনর এ দিন্নোত ফাঙ ওয়ে তিবুরা চাঙমা ছাত্র জধা আ উদন্ধি সদকর আরকানিত আ মিজোরামর সিএডিসি আ তিবুরার ট্রাইবেল রিচার্স ইন্সটিটিউট-র বলাবল্যাত তিনমাস্যা চাঙমা লেঘার সার্টিফিকেট কোর্স। এ দিন্নোত্তুন ধরি তিবুরাত চাঙমা লেঘা লারচার গঙার ওয়ে, জয়ন চাঙমার আহ্ত ধরি তিবুরাত সোম্মেগি চাঙমা লেঘা সফট্ ওয়্যার। এ দিন্নোয় তিবুরা আ মিজোরামর চাঙমাগুনোর মধ্যে ইক্কো সোনারেগা বানেই দিয়ে।

২. আন্তর্জাতিক মা-ভাচ দিন (২১ ফেব্রুয়ারী) : এ দিন্নো ইউনেসকোর গঝি লোয়ে দিন। এ পইদ্যানে বেঘে খবর পা’ন। সেনত্যায় নুও গরি আর তুলোপারা গরা ন’অহ্ল’।

৩. রাধামন-ধনপুদি দিন (ফাগুনো পুন্নিমা) : রাধামন-ধনপুদি চাঙমা জাদর পোচপানার চিন্নক। ইরুক যুগোর লঘে তাল মিলেনেই, হজমা তম্ভাবোরে পরর আচ্চারাত্থুন আলক রাগেবাত্যায় ঠধষবহঃরহবং উধু বাবদর এ দিন্নো। রাধামন-ধনপুদির নাঙে হন দিন্নো পালেই পারা যায় সিয়েন বজক ঘাদিনেই এভসঙ ঠার গরি পারা ন’যায়। সেনত্তেই গেঙখুলিনানুদাঘির ‘ফাগুনো আহ্বানে ফিরিলো …’ হধাগান ঈদোত রাঘেই এ দিন্নো ঠিক গরা ওয়ে।

৪. শিব চরন দিন (১ জুলাই) : আদিকবি শিবচরনর নাঙে ইক্কো দিন পালেবার দরকার আগেধে হধাঘান ভেক্কুনে খাম খান। মাত্তর জাতগরি তা পইদ্যানে হন’ তারিখ এভ’ সঙ ঠায়ঠিক গরি পারা ন’যায়। তালাভিনানুগুনোর মতে ১১ আষাঢ় দিন্নো শিবচরনর জনম দিন, ফগির ওহ্ই নিগিলি যেবার দিন আ লুক দিবারো দিন। ঈজেপ গরিলে এ ১১ আষাঢ়বো মোটামুটি ১ জুলাই পরে। সেনত্তেই এ দিন্নো লুও ওয়ে। এজেত্তে দিনোত শিপচরনর পইদ্যানে আর’ তালাভি গরি গমে জানি পারা গেলে সেক্কে এ তারিক্কো সোর গরিলেয়ো গরি পারা যায়।

৫. আর্ন্তজাতিক আদিবাসী দিন (৯ আগস্ট) : ইভে জাতিসংঘর খামখেইয়ে গদা পিত্থিমিত পালান্নে দিন। ইভে পালানায়ো জদেপদে দরকার আঘে।

৬. অভিক কুমার জনম দিন (৩ সেপ্টেম্বর) : সুনানু অনিল বরন চাঙমা লেখ্যে ‘‘চাঙমা কধা চাঙমা গীত, শুনিলে মর জুরায় চিৎ’’ আ এ চাঙমা গীদর হধা ঈদোত উদিলে যা নাঙান ঈদোত উধে তে অহ্লদে সুনানু অভিক কুমার চাঙমা। আমি যনি সংস্কৃতির বামত্তুন হন জনরে বঝরপত্তি ঈদোত তুলিভার চেই সালে একমাত্র অভিক কুমারই ওহ্ই পারে সিভে।

৭. উধুবলী দিন (৩ অক্টোবর) : বাবদর বাবদর দিন আমার দরকার পালেবাত্যায়। খারার হধা যদি উধে সালে হন দিন্নো আমি পালেবঙ ? সে জঘার আমার হন’ জন নেই যা নাঙে আমি দিন পালেই পারিই। পুরোনী বুড়ো-বুড়ির মুওত্থুন শুনো যায় হয়েক জন বলীর হধা – উধু বলী, হজ্জাল বলী আর’ নানান নাঙ তারার। সালে সিগুনোর একজনর নাঙে খারার পইদ্যানে ইক্কো দিন পালেলে হেঝান অহ্য় ? সে বাবদরই এগেম ‘উধুবলী’ দিন্নোর।

৮. এম. এন. লারমা দিন (১০ নভেম্বর) : নানান জনে নানান হধা তুলিলেয়ো যদি পুঝোর গরা অহ্য় চাঙমা জাত্তো উগুরে হার রাজনৈতিক প্রভাপ বেঘত্তুন বেচ সালে এক হধায় বেঘে খাম খেবাক সিভে মানেবেন্দ্র নারায়ন লারমা। সালে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হন’ জনর নাঙে যদি আমি দিন পালেবার চেই সালে এম. এন. লারমাত্তুন অজল হন’ জনরে দেঘাই ন’ যায়। মাত্তর পারাপাঙ মান্যে/নমান্যে হধাগান চিগোন গরিনেই তার গদা জিঙহানির হামর অঝারান তুলি ধরিভার চেলে আমি (মানে ভারদর চাঙমাগুনে) তার শহীদ দিবসর বদলে জনম দিন পালেই পারিই। যেমন মহাত্মা গান্ধীরো শহীদ দিনর বদলে জনম দিন পালন গরা অহ্য়।

৯. সিএসএ দিন (১৯ নভেম্বর) : ২০০১ সনর এ দিন্নোত, আমার যে জধাবোর নাঙ এচ্চে গদা ভারদত সিদি যেয়ে, সে জধাবোর বিজি আগরতলাত লাগেয়োন আমার হয়েকজন হাম্মো বড় ভেই – বড় ভোনে। তারার হয়েক জন ওহ্লাক কৃতক চাঙমা, সনৎ দেওয়ান, জগৎ জ্যোতি চাঙমা, বরুন চাঙমা, নীল কান্তি চাঙমা, শান্তি রঞ্জন চাঙমা, তবনা চাঙমা, অমিতাভ চাঙমা, সুমঙ্গল চাঙমা, লিপি চাঙমা, সিঞ্চন চাঙমা (ইক্কু নেই), জীননানন্দ চাঙমা, সুজয় চাঙমা, শৈলেখা চাঙমা, বর্ণালী চাঙমা, জুনিকা চাঙমা, মিনতি চাঙমা আ আর’ অনেগে। তারারে আমি এ দিন্নোত পাত্তুরুতুরু জানেবঙ আ খাম খেবঙ – তারার দেঘেয়ে পধ ধরি আমি এগত্তরে আক্কোই যেবঙ। চাঙমা জাদর অধিকার আদায়র লাড়েইয়ত আমি হন’ দিন পিঝেধি ন লামিবোঙ।

১০. ননা হাজি দিন (৫ ডিসেম্বর) : চাঙমা জাদর বিগিধি-হিরিমিরির চিন্নক ননাহাজি। ইরুক যুগোর এপ্রিল ফুল্স ডে সান গরি এ দিন্নো গঝি লুও ওয়ে। মাত্তর ননাহাজির পইদ্যানে হন’ বিজগী মাজারা তোগেই সুগ ন’ পেভার কারনে উজু উজু ইক্কো দিন ফেলা ওয়ে – ৫ ডিসেম্বর। তা পইদ্যানে হন’ সুনানুয়ে যদি হন’ বিজগী তারিখ আমারে জানেই পারন সালে পাত্তুরুতুরুর সমারে আমি সিভে গঝি লভঙ। এ দিন্নোত আমি সমাচ্যা-সমাচ্যার মধ্যে বিগিধি এসএমএস পাধা-পাধি গরি পারিই। হন’ হন’ জাগাত গপ দিবার জিদেজিত্যা গরি পারিই।

উগুরোর দিনুনোর পইদ্যানে নানা জনর নানান বাবদর মতামত থেই পারে । মাত্তর আমাত্থুন ঈদোত রাঘা পরিবো যে ইয়েনই শেজ হধা নয়, ইয়েনদ’ বানা শুরু অহ্লদে।

মাদি, অক্টোবর, ২০১০, আট্য বঝর, নাদা-৫৫

কেত্তেই আমার চাঙমা লেঘা দরকার

এক কালর ধনে-জনে-জ্ঞানে পতপত্যা শাক্য জাদর মানুজ আমি চাঙমাঘুন বিজগর নানা ঘুলন্যাত পাক খেনেই ইক্কুনু ছত্রভঙ্গ। ভারত-বাংলাদেজ-বার্মা আ নানান দেজত ছিদেছিত্যে ওহ্নেই জাত-বেজাতর চাবত পরিনেই আহ্রেই ফেলের আমার বেক দোল হাচ্যেক্কানি। বেক হিঝু আহ্রেনেয়ো আমা আহ্দত রোয়ে বানা আমা ধর্মঘান আ আমা ওক্কোরুন। এ দিয়েন আমার আরাঙ সম্পত্তি বুঘত ধরি রক্ষে গরি ন পারিলে চাঙমা জাত একদিন আন্দামানর ‘বো’ জাত্তো সান গরি পিত্থিমিত্তুন লুগেই যেবগোই।

একমাত্র চাঙমা ওক্কোরুনেই পিত্থিমির বুঘোত ইক্কো জুদো জাত ভিলি আমারে চিন দি পারন। কারন দেঘা যায় যে, লোকসংখ্যাদি অরুনাচলত এক নম্বর, মিজোরামত দি নম্বর আ তিবুরাত তিন নম্বর ভাষাগুত্থি অহ্না সত্তেয়ো ভারদর সেন্সাস রিপোর্টত চাঙমাগানরে একখান আলাদা ভাষা ঈজেবে ধরা ন অহ্য়। ধরা অহ্য়দে বাংলার একখান উপভাষা ঈজেবে। ভারদর লিঙ্গুইস্টিক মাইনরিটিজ কমিশনেয়ো চাঙমাঘান আলাদা ভাষা ঈজেবে স্বীগের ন গরে। উত্তর-পূগ ভারদর ট্রাইবেল ভাষাগানির সরকারী লিস্টদো চাঙমা ভাষাগানর নাঙ নেই।

ইয়েনির ভেক্কানির কারন অহ্লদে আমার লেঘা-লেঘিত চাঙমার বদলে বাংলা ওক্কোরুন লারচার গরানাহ্। অনেগে হয়ত হোই পারন ককবরক, মনিপুরী – এ ভাষার মানুষ্যুনেয়োদ’ বাংলা বা এ বাবদর অহ্রক লারচার গরন। তে সে ভাষানি হিঙিরি আলাদা ভাষার মর্যাদা পায় ? তার কারন অহ্লদে এ ভাষাগানি বাংলা আ অসমীয়াত্তুন ভোজোমান ফারক – সম্পূর্ন জুদো ভাষাগুত্থির। আমা ভাষাগান বাংলার লঘে একই ইন্দো-ইউরোপীয় ভাষাগুত্থির অহ্নার ফলে বাংলা লঘে হধে-শুনদে প্রায় হায়-হি, সে উগুরে আমি লারচার গরিই বাংলা অহ্রক – সেনত্যেই ভাষা কাবিলুনো চোঘোত চাঙমা ভাষাগান আলাদা ভাষা ঈজেবে চিহ্নিত গরিভার মত হন ডাঙর ধক চোঘোত ন পরে।

আমি যদি আগেত্তুন ধরিনেই আমা লেঘা-লেঘিত চাঙমা ওক্কোরুন বেচগরি লারচার গরি এধঙ সালে পত্থমত্তুন ধরিনেই চাঙমাঘান আলাদা ভাষা ঈজেবে স্বীকৃতি পেই এলুন আ আমা ভাষাগান ভালেদ গরিবাত্যেই নানান বাবদর বলাবলো বেজ পেলঙুন। আজলেহ্ বাংলা ওক্কোরুন আমি যেধকদিন সঙ পুরোপুরি লুঙিহ্ মারি ন পারিবোঙ সেধকদিন সঙ আমার ‘টিলা বাঙাল’ বন্নামানো ন যেব’ আ চাঙমা ভাষাগানো আলাদা ভাষা ঈজেবে স্বীকৃতি ন পেভ’।

আমা ভারদত এক আহ্জারর হাজাহাচ্যে ভাষা আঘে মাত্তর ওক্কোর আঘন্নে বানাহ্ ২০ বাবদরো হম। সিত্তুন বেজভাক ভাষায় দেবনাগরী ওক্কোরুন লারচার গরন আ চিগোন-চাগোন ভাষাগানিত বেজভাক রোমান ওক্কোর লারচার গরাহ্ অহ্য়। অনেকে আবার নিজে নিজে ওক্কোরো বানেয়োন। যেমন, সাঁওতালুনোর ‘আলচিকি’। হন ভাষার ওক্কোর থানা মানে সিয়েন এক্কান ভজমান বার গরি পারে পারা হধা। আমা ওক্কোরুন বানা চাঙমাগুনোর নয় সিগুন ভারদর পুরনি সংস্কৃতির একখান দোল মাজারা। সেনত্তেই সিঘুন বাজেই রাঘানা বানা চাঙমা জাদর নয় গদা ভারদর মানুষ্যুনোর দায়িত্ব আঘে ভিলি আমি মনে গরিই।

এচ্চে আমি চাঙমাঘুন তিন দেঝর নানা বামত ছিদেছিত্যে ওহ্ই আঘিই। দেজফারক, পরিবেশ ফারক, শিক্ষার মাধ্যমর ফারক – ইয়েনিয়ে আমারে ফারক গরার আর’ বেজ গরি। আমা বাংলা ওক্কোরোর লেঘা-লেঘিনি মিজোরাম-অরুনাচলত পড়ি ন পারন আ তারা লেখ্যা রোমান অহ্রগর চাঙমাগানি পড়িলে আমি ভাচ জরেই ন পারিই। আঝলে হন ইক্কো জাদে দি বাবদর অহ্রক হন দিন গঝি লোই ন পারন। আর যদি লন্নে অহ্য় সিয়েন অহ্ব’ তারার নাতদি মরানার সান।

বিজগত নাঙহিন্যে আঘে যে আমা জাত্তো প্রায় ৬০০ বঝর আগে দৈংনাক্যা, আনক্যা, তোঙতোঙ্যা – এ তিন ভাগে ভাক ওহ্ই যেয়ে। হয়েকদিন পরে আমার ভিদিরে হয়ত জনম লভ’ বাংলাদেচ্যে চাঙমা, ভারত্যা চাঙমা, মিজোরাম্যা, অরুনাচল্যা চাঙমা – এ বাবদর আর নুও নুও ধেলা। মনত উধে জনেশ আয়ন চাঙমার কবিতা – ‘পরে বেইল্যাক তেঙেরা,/ মিঝেল-মাজাল এক পাড়াল্যা ভাত পিলে ওল দজোরা।’ আজলে আমার পরর তেঙেরায় দেজ ভাঙালা। আর সে উগুরে যদি আমি এক জনর ভাষ আরেক জনে ন বুঝে পারা গরি ওক্কোরোর তেঙেরা বেড়ি সালেন চাঙমা জাত্তো হাহ্জেইদ্যা গাঝর সান গরি লারে কিন্তু হামাক্কায় গরি মরানার পধত লর দিবো।

একমাত্র অঝাপাত্তোই পারিবো আমারে এ মরনর পধত্তুন ফিরেই আনি। একমাত্র চাঙমা লেঘার রেগাদি পারিলেই মিলি পারিবোঙ আমি দৈংনাক্যা-আনক্যা-তোঙতোঙ্যায়। মিলি পারিবোঙ দেজকুল্যা-অরুনাচল্যা-মিজোরাম্যা-তিবুরাকুল্যায়। সালেই আমি বলবলা গরি নাঙ হোলেই পারিবোঙ – অহ্য় আমি শাক্য জাদর মানুজ – আমি হন জনত্তুন হন হিত্যেদি উনো নয়।

মাাদি,  এপ্রিল, ২০১০, আট্য বঝর, নাদা – ৪৯

CREATING IDENTITY AND UNITY

Chakma Logo.jpgTo preserve our distinct identity and to safeguard unity among us will be the two main challenges in the days to come. Modern time is robbing our identity and making us self-centric monsters cutting out from own society. But it has also gifted us powerful weapons to safeguard our endangered elements which give us distinct identity as Nation and gave us access to deep reached networks for communication among ourselves. Rejuvenation of Chakma Scripts with the help of computer experts and Chakma film production with the help of low-cost handy cams are just two examples how we can use modern technologies to safeguard our identity.

Chakma National Flag

IDENTITY CREATION: Development without distinction is called extinction. So, it is not possible to welcome any kind of development in the cost of our identity. Economic development in the cost of religious identity, political development in the cost of social identity is highly condemnable.  Our fuzzy identity is evident from our decaying and distorted cultural and linguistic wealth. We could not able to emboss our identity on the name of our hills, rivers and villages. We could not stamp our footprints in the schools, hospitals and roads we made. We even failed to adorn our own rich tradition of singing and cooking. So, we all must work reluctantly in order to intact our own identity in every sphere of our life.

Photo1936.jpg

UNITY: History has already devastated us by dividing us in to three groups viz. Anokyes, Tanchangyes and Doinakyes; dividing further into Indian Chakmas, Bangladeshi Chakmas and Burmese Chakmas. Indian Chakmas are also divided into Arunachal hullyes, Mizoram hulyes and Tripura hulyes, and finally we are dividing ourselves in to Buddhist Chakmas and Christian Chakmas. Unity must be prevailed to prevent a doom and it should come from inside. Unity should be started from our own house. If I cannot show brotherhood to my own brother then it is not possible for me to love a member of Doinakye Chakma, whom I never met and far far differences are there compared to differences I am having with my own brother.

215321_1783130656120_6706497_n

Now, let us try to list some small steps we may take which will help us to create identity & unity in our society and we will also attain enough strength to preserve the same:

IN THE FAMILY:

  1. Promote Pinon & Hhadi.
  2. Name your own and relative’s children in Chakma.
  3. Use Chakma words while calling relatives like Hakka, Mujhi etc.
  4. Encourage children to listen into Chakma music and to participate in traditional sports.
  5. Use Chakma scripts in day to day writings and encourage family members also to do so.
  6. Regularly visit Hiyongs with your children, if possible find a place to install Buddha image in a corner of your house. Farek Sunona, at least once in a year will help us to keep our family intact with our own religion.
  7. Try to channelize modern celebrations in our traditional way like Birth Day celebration with Farek Sunona and Picnic with Jumo Hhana with goram & hebang etc.

487461_488114827927807_1522819584_n

IN THE FRIENDS’ CIRCLE:

  1. Promote words like Jhu jhu, Dangu, Siji reit etc.
  2. Encourage discussions on various positive aspects of our society and what could be done to promote those aspects.

945146_488114834594473_2001908350_n.jpg

IN THE ADAM:

  1. Try to strengthen our own judiciary system-Adam, Chagala, Suloani, Rejyo & Raj Panchayet.
  2. To preserve the original Chakma names of villages, rivers, hills and other places and try to record it in Govt. documents.
  3. Put signboard in the entrance & exit points of adam, market, roads, schools, Hiyongs etc. & in front of Harbaris residence in Chakma scripts.
  4. Rename the names of schools, hospitals, markets, roads & lanes in the name of our past respectable personalities and put signboard in Chakma scripts.
  5. Put nameplates in your own residence in Chakma scripts.
  6. Special cares may be taken for smooth running of Schools and Hiyongs as these are the pillars of our adams. Every schools should have school managing committees apart from Govt. sponsored committees (because most of the time, these committees represents only ruling party leaders) in the line we are having Hiyong management committees.
  7. Promote collective help instead of helping someone personally.
  8. Try to create a helping chain, like helping someone in a condition that he may help someone else once his situation improves.
  9. Imprint the view that our schools, our hospitals, our Hiyongs, our rivers, our roads, our forests etc. are our own wealth and our wellbeing depends on the development and preservation of these wealth.

182607_1725780578213_4605995_n.jpg

PERSONAL:

  1. Use WE instead of I.
  2. Never boast of on your deeds rather praise collective achievements.
  3. Always take joint decisions. If meeting is not possible for emergency, take opinions over phone.
  4. Never turndown anyone directly. Always praise other’s suggestions and politely tell him that it will be better if include some points in that or modify the programme in this way.
  5. Always aside the hardest task for yourself.
  6. Develop the quality to accept responsibility for a mistake.

263171_201606733221012_100001150593273_497767_6520444_n

CREATING CULTURAL IDENTITY:

  1. To promote original Chakma tunes viz. Ubhogeet, Jhorageet, Oligeet, Tanyebigeet etc.
  2. To promote traditional musical instrument viz. Dudhuk, Bajhi, Singe, Hengorong etc.
  3. To maintain Chakma ghacchara in Chakma songs.
  4. To maintain Chakmaness in celebration various days, Bijhu festivals, marriage ceremony, picnic etc.
  5. To promote celebration of our own festivals, days and to search for some new days for observation.
  6. To promote traditional games and sports.

Aalam.jpg

ORGANISING THE ORGANISATIONS:

  1. We should promote those organizations whose motto is to create and preserve of distinct identity of the Chakmas and works for unity among all the Chakmas.
  2. Unnecessary creation of new organization should be discouraged, instead we should strengthen/rejuvenate our old organizations. If situation demands, a federation of existing organizations.
  3. A deep rooted organisation having cultural wing, sports wing, students wing, youth wing, women wing, employee wing, judicial wing & development wing may help us to stop mashrooming of organisations in our society and to ensure mass participation towards development process of our own society.
  4. Decision should be taken after thorough consideration. Once a decision is taken there should be no hesitation in action.

Bijhumela LOGO copy3.jpg

GROW WITHIN TO BE A TRUE LEADER:

A leader is said to be one, who-

  • Knows the way, goes the way and shows the way,
  • Inspires others,
  • Follows instructions carefully, there is saying that juniors of a leader treat him alike how he treated his leaders when he was a junior,
  • Respects his fellow workers to earn respect for himself,
  • Has a good judgment,
  • Adoptable to change,
  • Emotionally stable,
  • Looks before leaps,
  • Does not work for self-interest and does not misuse his position for self-interest,
  • Creates leaders,
  • Possess a good character,
  • Has a strong and healthy body and mind,
  • Has a well-controlled tongue & temper,
  • Has a real desire to happy others,
  • Has an innovative mind,
  • Has appetite to improve himself,
  • Loves his work,
  • Always puts extraordinary expertise in an ordinary work,
  • Feels that he should do a task on behalf of his society &
  • Has a strong historical attachment with the good deeds done by the previous leaders of his community. He draws the strength from their deeds and grows to find new ways for the future.

154794_460618008164_595653164_5689583_2086990_n.jpg