পজিটিভ রাচনীতি, নেগেটিভ রাচনীতি

আমন’ ধক্যে চাঙমা চাঙমা গোরি থেয়্যে (অনেগর মতে হুয়ো বেঙ) মুনিচ্যরে আবাধা গরি রাচনীতি বাবদর মেলাক জিনিঝোর পইদ্যেনে হলম ধরিলে অনেগে আমক ওহ্বাক হামাক্কায়। অহ্লেয়ো ইরুক হয়েক্কো পতপত্যে চাঙমা পুও-ছাবায় রাচনীতিত লাম্যন হিনেত্তেই তারার উধিঝে এ লেঘাগান। তবে ইয়োত তুলোপারা গোচ্যে জিনিচ্চানি বে’ক জাগার পইদ্যেনে থে’ হেলেয়ো আঝলে সিয়েনি চা’ ওহ্য়ে মুলত তিবুরার রাচনীতির নজরে। সেনত্তেই, জে পরভুও লক্কুন তিবুরা হুল্লে নয় তারা হয়ত বেক ব্যাপারানি বুঝোদে এক্কা লেবর-ঝেবর ওহ্ই পারে সেনত্তেই মুই তারাত্তুন আকমুলিম হেমা চাঙর।

পজিটিভ রাচনীতি হি আ নেগেটিভ রাচনীতিই বা হি ? ভিশন ছাড়া পজিটিভ রাচনীতি ওহ্ই ন’ পারে। পজিটিভ রাচনীতি গরিয়েই পতপত্যে গরি দেঘে তার দায়িত্য পরিলে তে আদামানি হেধক্যে গরি সাজেব’। পত্তানি হেধক্যে গরি বানেব’। হন ছড়ান’ উগুরে হেধক্যে গরি রেগা দিবো। হন হন জাগাত ইস্কুল-কলেচ বানেব’। সে ইস্কুলানি হিঙিরি চলিবো। হন হন জাগাত হাসপাতাল বানেব’। সে হাসপাতালানির পতপত্যে ছাবা তা চোঘোত ভাজি বেড়ায়। তে হবর পায় তে হেধক্যে আদাম চায়, হেধক্যে রেজ্য চায়, হেধক্যে দেচ চায়।

Continue reading

Advertisements

রুধুক মরা জাদর লেমপচ্যা রাজনীতি

 

১৯৪৭ সনর ১৫ আগস্ট ভারদ স্বাধীন অহ্য়। তার ঠিক দি বঝর দি মাঝ পরে তিবুরা রেজ্যঘান ভারদর লঘে মিঝি যায় ১৯৪৯ সনর ১৫ ই অক্টোবরত। সারা ভারদর লঘে ১৯৫২ সনত তিবুরাদো ভোট অহ্য়। লোকসভা আ ইলেকটোরাল কলেজর ভোট। সেক্কেনর চাঙমাঘুনোর রাজনৈতিক ভাবে হন চেতনা এল ভিলি মনে ন অহ্য়। যদিও সেক্কেনে মাছমারার লেদ্রাই দেওয়ান তিবুরার রাজা বীর বিক্রম কিশোর মানিক্যর সভাত ‘সর্দ্দার’ উপাধি লোনেই তিবুরা রাজসভাত বজিভের জু পেয়ে আ কাঞ্চনপুরর ফরা কিংকর চাকমার দশরথ দেবর গণমুক্তি পরিষদর লঘে যোগাযোগ এল ভিলি শুনো যেয়্যে। সেবাদে ত্রিশর দশকর ত্রিপুরা রাজ্য গণ পরিষদ বা ত্রিপুরা রাজ্য জনমঙ্গল সমিতি, চলি­শর দশকর জনশিক্ষা সমিতি, গণমুক্তি পরিষদ বা কংগ্রেস-কমিউনিস্ট-ফরোয়ার্ড ব্লক হন দলদোই চাঙমাঘুন গমেদালে ঘুনজি-মুনজি এলাক ভিলি খবর পা ন যায়। যদিও উপজাতির মধ্যে তারা লোক সংখ্যাদি এলাক দ্বিতীয় আ শিক্ষাদীক্ষাধিয়ো এলাক ত্রিপুরী স¤প্রাদায়র ঠিক পরে। তিবুরার চাঙমাঘুনোর এ রাজনীতি অনীহার হয়েকখান কারন আঘে। সিয়েনি অহ্লদে- Continue reading

হমলে গরি জানিবোঙ আমি রাজনীতি ?

সুনানু বিদি যেয়ে এম. এন. লারমা হোয়ে, ‘‘রাজনৈতিক অধিকার ছাড়া হন অধিকার তিগি থেই ন পারে।’’ রাজনৈতিক অধিকার অহ্ল’ সে বলা মাদিঘান যুওত যে হন অধিকার – অর্থনৈতিক, সামাজিক, ধর্মীয় বা ভাষাগত অধিকারর চারা লাগেলে সে অধিকারর ভালেদর ফসল আমি ঘরত তুলি পারিই। আর রাজনৈতিক অধিকার যদি হন জাদর ন থায় সালে হন অধিকারর বিজিই সে জাদর বুঘত গেজেই ন পারন। সেনত্তেই, আমি রাজনীতি গমপেই বা ন পেই, জিগুনে রাজনীতি গরন তারারে হোচপেই বা ন পেই – রাজনীতি আমা জিঙহানিঘান চেরোপালাত্তুন বেরেই থেবই থেব।

এম. এল. এ. ওহ্বাত্তেই রাজনীতি, চাগুরি পেভাত্তেই রাজনীতি – ইয়েনি রাজনীতি নয়, সুবিধেনীতি। দঝর ভালেদত্তেই দঝরে লোনেই হাম গরানাই অহ্লদে আঝল রাজনীতি। আর এ দঝর ভিদিরে নিজরে যেমন গনি পারে, তেমনি ধরি পারে নিজর ঘোরবো আ জাদরে। সেনত্তেই দোল রাজনীদিয়ে দঝর ভালেদর লঘে নিজর, নিজ’ ঘোরবোর আ নিজ জাদরো ভালেদ গরিবো হামাক্কায়।

একখান হধা আঘে, ‘তিবুরার চাঙমাগুনে নিজে রাজনীতি ন গরন, তারারে পরে রাজনীতি গরান্নে।’ হধাগান তোলেই চেলে মিঝে নয়। একজন প্রকৃত রাজনৈতিক কর্মীর হামেধি তার জাদর, বামর জনগনর আহ্ওজর ছাবা ফুদি উধিবো। কিন্তু চাঙমা রাজনৈতিক কর্মীগুনে তারার জাদর মানুষ্যুনোর রাজনৈতিক চেতনা ফুদেই তুলনার মধ্যেদি নিজর সমস্যা নিজে সমাধান গরিবার আন্দোলনত নেতৃত্ব দি ন পারন। তারা হাম গরন নিজ জাদর গনতান্ত্রিক ধাবপানিরে চাবেই থোবার বা জুদো পধেদি নেযেবার এজেন্ট ঈজেবে। তারা নিজর জাদর হধা মু খুলি হধে এমন ডড়ান যে, মানুজে মনে গরিভাক তারা হন খুন বা ডাগেদি গরিভার তেম্মাঙ গরধন। অথচ তারারই আকমোলিগুনোর জিঙহানি তলবিচ গরিলে আমি দেঘিই যে, তারা আন্দোলন গড়েই তুলিবাত্তেই হন’ এক্কান বামত যেনেই সে বামর মানুষ্যুনোর সমস্যা জানিবার চেষ্টা গোচ্চোন্দোয়, পরেধি সে সমস্যাগানি উগুরে ভর গরিনেই গণ আন্দোলন গড়ি তুল্যন। কারণ, গণতন্ত্রত দঝর ধাপ-আহ্ওজই আঝল হধা। যে তন্ত্রয় দঝর ইচ্ছেরে দাম ন দিবো সিয়েন যে কোন তন্ত্রই ওহ্ক, গণতন্ত্র কিন্তু নয়। সেনত্তেই যেধকদিন সঙ চাঙমা রাজনীতি গরিয়েগুনে নিজর বামর, নিজর জাদর মানুষ্যুনোর ধাপ-আহ্ওচ্চানিরে দাম ন দিবাক সেধকদিন সঙ তারার নিজর থিধেবি যেমন দরমর ন অহ্ব’ নিজর জাদরো হন ডাঙরমাক্যা ভালেত ন অহ্ব’।

মাদি, জুন, ২০১০, আট্য বঝর, নাদা-৫১